previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  মাধবপুর  >  বর্তমান নিবন্ধ

মাধবপুরে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ

 জুন ৩০, ২০২০  /  কোন মন্তব্য নাই

মোঃ মিটন মিয়া মাধবপুর : মাধবপুর উপজেলার বিভিন্ন বাজারে প্রকাশ্যেই বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ। মাধবপুর উপজেলা প্রশাসন এর পক্ষ থেকে বার বার এই মাছগুলোর উপর অভিযান পরিচালনা করলেও থামানো যাচ্ছে না তাদের। অতিরিক্ত মুনাফার লোভে মাছ ব্যবসায়ীরা রূপচাঁদা মাছ বলে তা ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করছেন। 
নোয়াপাড়া, জগদীশপুরের বিভিন্ন বাজারে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে রূপচাঁদা মাছের নাম করে নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ বিক্রি হচ্ছে। মাছ ব্যাপারীরা নিয়মিত পিরানহা মাছ সুতাং বাজার মাছের আড়ৎসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে এলাকায় এনে বিক্রি করেন।
খুচরা  মাছ বিক্রেতারা সেসব মাছ কিনে নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ভোক্তাদের কাছে বিক্রি করেন। মাছ কিনতে বাজারে আসা অনেক ক্রেতা বলেন নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ দেখতে মানুষের মত। এগুলা মাছ না বিষ। যে সকল অসাধু ব্যাবসায়ী এই মাছ বিক্রি করে তাদের আইনের আওতায় আনা হউক।
মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এ এইচ ইশতিয়াক (মামুন) দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে বলেন, পিরানহা মাছ দেহের জন্য অনেক ক্ষতিকর। এই মাছ খেলে কিডনি বিকলসহ দেহে নানা রোগ দেখা দিতে পারে। নানা রকম শারীরিক উপসর্গ দেখা দিতে পারে।
পিরানহা মাছ চাষ ও বিক্রি সম্পর্কে জানতে চাইলে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু আসাদ বলেন, পিরানহা মাছ চাষ, বহন ও বাজারে বিক্রি সরকার নিষিদ্ধ করেছে। আগে মাধবপুরে কয়েকটা কঠোর অভিযানের পর এই মাছ বিক্রি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তবে ইদানীং অভিযোগ পেয়েছি বাজারে অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরোদ্ধে অতিবিলম্বে আইনি ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।
  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

মানবিক সাহায্যের জন্য আবেদন !

আরও পড়ুন →