previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  শীর্ষ সংবাদ  >  বর্তমান নিবন্ধ

হবিগঞ্জে ৬ টি সাংবাদিক সংগঠন; সবগুলোই অনিবন্ধিত!

‘সাংবাদিক সংগঠনগুলোকে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনা হবে’- জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান

 জুন ২৪, ২০২০  /  কোন মন্তব্য নাই

তারেক হাবিব॥ সংবাদপত্র জাতীর দর্পণ! সাংবাদিকরা জাতীর বিবেক। সাংবাদিকদের সত্য লেখনীর মাধ্যমে সমাজের অসহায় নির্যাতিতরা ন্যায্য বিচার পেয়ে থাকে। দুর্নীতিবাজদের মুখোশ উন্মোচিত হয়, সমাজ হয় কলঙ্কমুক্ত। হবিগঞ্জ জেলাকে সংবাদপত্রের ভা-ার হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে। এ জেলায় রয়েছেন পুরস্কারপ্রাপ্ত খ্যাতিমান প্রবীণ সাংবাদিকও, যাদের সততা ও সত্য লেখনীর ধারালো গতিকে রোধ করতে পারেনি কোন অপশক্তি।

হবিগঞ্জ জেলা থেকে নিবন্ধিত পত্রিকার সংখ্যা ২০টি, সর্বশেষ সংযুক্ত হয়েছে ২১তম পত্রিকা হিসেবে ‘দৈনিক আমার হবিগঞ্জ’। পূর্ব নিবন্ধিত পত্রিকাগুলো হলো দৈনিক প্রতিদিনের বাণী (৩০৭), দৈনিক খোয়াই (৩০৮), দৈনিক স্বদেশ বার্তা (৩০৯), দৈনিক প্রভাকর (৩১০), দৈনিক হবিগঞ্জের আয়না(৩১১), দৈনিক হবিগঞ্জ এক্সপ্রেস (৩১২), দৈনিক হবিগঞ্জ সমাচার (৩১৩), দৈনিক আজকের হবিগঞ্জ (৩১৪), দৈনিক আয়না(৩১৫), দৈনিক বিবিয়ানা (৩১৬), দৈনিক লোকালয় বার্তা (৩১৭), দৈনিক তরফ বার্তা(৩১৮), দৈনিক হবিগঞ্জের জনতার এক্সপ্রেস(৩১৯), দৈনিক দেশ জমিন (৩২০), দৈনিক বিজয়ের প্রতিধ্বনি (৩২১),দৈনিক হবিগঞ্জের সময় (৩২২), দৈনিক হবিগঞ্জের জননী(৩২৩), দৈনিক বরাক প্রতিদিন (৩২৪), দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী (৩২৫) ও দৈনিক হবিগঞ্জের মুখ (৩২৬) যা আমাদের পাশর্^বর্তী জেলা মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ থেকেও বেশী।

সংবাদপত্রের ভা-ার এ জেলায় রয়েছেন অগণিত সংবাদকর্মীও। তাদের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে অন্তত ৬টি সাংবাদিক সংগঠন। জেলা জুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা এ সকল সাংবাদিকদের আবার রয়েছে কিছু বিদ্রোহী সংগঠনও। কেউ কেউ আবার স্থানীয় কোন মিডিয়ার স্থান না পেয়ে সংগ্রহ করেন ঢাকা থেকে প্রকাশিত অজানা কোন সাপ্তাহিক, মাসিক ইত্যাদি পত্রিকার কার্ড। সে কার্ড দিয়ে অবাধে দাপিয়ে বেড়ান অফিসপাড়া, করছেন আবার থানা-আদালতের দালালীও। হবিগঞ্জের আনাচে-কানাচে কিছু হলুদ সাংবাদিকদের আনাগোনা বেশ লক্ষ্য করা গেছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণীরও কম। নিজেদের সাংবাদিকতার পরিচয়টা ফুটিয়ে তুলতে ওই সকল হলুদ সাংবাদিকরা ধার ঘেঁষে চলেন প্রকৃত রুচিশীল আদর্শবান সাংবাদিকদের। কেউ আবার সংবাদকর্মী হবার আগে হয়ে যান সম্পাদকও। অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট খোলে কোন নিবন্ধন ছাড়াই ফাঁক-ফোঁকর দিয়ে মাঝে-মাঝে বের করেন পত্রিকা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে ইতোমধ্যে হবিগঞ্জ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা মোট ৬টি সংগঠনে বিচ্ছিন্নভাবে জড়িত। তবে প্রতিটি কমিটির বা সংগঠনের কোনটারই নেই কোন রেজিস্ট্রেশন বা কেন্দ্রীয় কোন চেইন অব কমান্ড। অথবা এমন কোন সংগঠনও রয়েছে যার নেই কোন কেন্দ্রীয় অস্থিত্ব। মনগড়া ভাবেই গঠন করা হয়েছে হবিগঞ্জ কমিটি। সাংবাদিক সংগঠনগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য গুলো হল, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, হবিগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরাম, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, হবিগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটি, হবিগঞ্জ সাংবাদিক সমিতি। এসব সংগঠন গুলো নিজেদের মনগড়া তথ্যেই গঠন করা হয়ে থাকে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা গেছে ওই সংগঠন গুলোর আবার উপজেলা কমিটিও গঠন করা হয়ে থাকে বিশেষ সুবিধার বিনিময়ে। সংগঠনগুলোর রেজিস্ট্রেশন না থাকার কারণে আর্থিক স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার কোন ব্যবস্থা নেই যা খুবই উদ্যেগজনক।

হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন প্রবীণ এক সাংবাদিক জানান, সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধতার কোন বিকল্প নেই। তবে ভিন্ন ভিন্ন সংগঠনে না জড়িয়ে সব সাংবাদিকদের একটা সংগঠনে থাকতে পারলে ভাল। কেন্দ্রীয় বা জাতীয় কোন কমান্ড না থাকায় প্রেসক্লাব অভ্যন্তরীণ নিয়মে চালানো হয়।
সরকারের রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিস (জঔঝঈ) এর অধীনে রেজিস্টার্ড করা ‘‘বাংলাদেশ প্রেসক্লাব’’র প্রতিষ্ঠাতা সিনিয়র সাংবাদিক ফরিদ খান জানান, ভিন্ন ভিন্ন সংগঠনে না থেকে সকল সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তবে শিক্ষিত মানুষদের ঐক্যবদ্ধ করা খুবই কঠিন কাজ। দেশের সকল সাংবাদিক সংস্থাগুলোকে সরকারের অধীনে রেজিস্ট্রেশন নিতে হবে। তাহলে যাবতীয় আয় এবং ব্যয়ের প্রকৃত হিসাব পাওয়া সম্ভব। বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে খুব শীঘ্রই দেশের সকল প্রেসক্লাবকে রেজিস্ট্রেশন বিষয়ে চিঠি দেয়া হবে।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘‘সংগঠনগুলোর রেজিস্ট্রেশন না থাকার বিষয়টি আমার জানা ছিল না, যেহেতু জেনেছি অবশ্যই সংগঠনগুলোকে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’’।

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

হবিগঞ্জে আলোর সন্ধানে শিক্ষা ফাউন্ডেশনের চেক বিতরণ

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!