হবিগঞ্জ শহরের বাসা দখল নিয়ে সদর থানা ওসি মাসুক আলীর এত আগ্রহ কেন?
হবিগঞ্জ পৌর পাঠাগারে বঙ্গবন্ধু কর্ণার উদ্বোধন
মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি ভোগান্তিতে ছাত্র অভিভাবক
মাধবপুরের ছাতিয়াইন বাজারে আইএফআইসি ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন
মাধবপুরে পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে পুলিশের সভা
শহরে মুন জেনারেল হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান : জরিমানা আদায়
লাখাইয়ে পানিতে ডুবে দুই বোনের মর্মান্তিক মৃত্যৃ
কে হচ্ছেন হবিগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কান্ডারী ?
মাধবপুরে অটোরিকশার গ্যারেজগুলো যেন মরণ ফাঁদ : বাড়ছে মৃত্যু 
বাঁচতে চায় লিভার সিরোসিস রোগে আক্রান্ত মাহিদা 
আজমিরীগঞ্জ কাশবনে বাড়ছে দর্শনার্থীদের ভীড়
সুজাতপুর রাস্তার বেহাল দশা : দ্রুত সংস্কারের দাবি
চুনারুঘাটে ১১ প্রবাসীদের সংবর্ধনা দিল সিপাহসালার সাইয়েদ নাসির উদ্দিন (রহ:) মিশন
শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনী
‘বিশ্ব নদী দিবস’ উপলক্ষে হবিগঞ্জের খোয়াই নদীতে আয়োজিত “নদী পরিভ্রমণ” কর্মসূচি
previous arrow
next arrow
হবিগঞ্জ শহরের বাসা দখল নিয়ে সদর থানা ওসি মাসুক আলীর এত আগ্রহ কেন?
হবিগঞ্জ পৌর পাঠাগারে বঙ্গবন্ধু কর্ণার উদ্বোধন
মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি  ভোগান্তিতে ছাত্র অভিভাবক
মাধবপুরের ছাতিয়াইন বাজারে আইএফআইসি ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন
মাধবপুরে পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে পুলিশের সভা
শহরে মুন জেনারেল হাসপাতালে র‍্যাবের  অভিযান : জরিমানা আদায়
লাখাইয়ে পানিতে ডুবে দুই বোনের মর্মান্তিক মৃত্যৃ
কে হচ্ছেন হবিগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কান্ডারী ?
মাধবপুরে অটোরিকশার গ্যারেজগুলো যেন মরণ ফাঁদ  : বাড়ছে মৃত্যু 
বাঁচতে চায় লিভার সিরোসিস রোগে আক্রান্ত মাহিদা 
আজমিরীগঞ্জ কাশবনে বাড়ছে দর্শনার্থীদের ভীড়
সুজাতপুর রাস্তার বেহাল দশা : দ্রুত সংস্কারের দাবি
চুনারুঘাটে ১১ প্রবাসীদের সংবর্ধনা দিল সিপাহসালার সাইয়েদ নাসির উদ্দিন (রহ:) মিশন
শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনী
‘বিশ্ব নদী দিবস’ উপলক্ষে হবিগঞ্জের খোয়াই নদীতে আয়োজিত “নদী পরিভ্রমণ” কর্মসূচি
previous arrow
next arrow
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  লাখাই  >  বর্তমান নিবন্ধ

লাখাইয়ে নববধূ গণধর্ষণের ঘটনায় প্রেস ব্রিফিং : ৪৮ ঘন্টার মধ্যে ৬ আসামি গ্রেফতার

 সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

এম এ রাজা।।  লাখাই উপজেলার টিক্কাপুর হাওরে স্বামীর সাথে নৌকা ভ্রমণ করতে গিয়ে নববধূ গণধর্ষণ শিকার হয় । ওই ঘটনায় ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে র‌্যাব ও পুলিশের পৃথক অভিযানে ৬ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে । সোমবার (৬সেপ্টেম্বর )দুপুর আড়াইটার সময় পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিং করা হয়েছে।
প্রেস বিফ্রিংয়ে উপস্থিত ছিলেন,পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা, আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মাহফুজা আক্তার শিমুল , হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মাসুক আলী, লাখাই থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি , মোশারফ হবিগঞ্জ জেলা শাখা ডিবি ওসি আল আমিন ,হবিগঞ্জ জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।
পুলিশ জানায় ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এজহারভুক্ত আসামি নাঈমুর রহমান শুভকে গ্রেপ্তার করেন ।পরে এজহারভুক্ত আরো দুই জন আসামি সোলায়মান রনি ও  মিঠু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে র্যাব ।পরবর্তীতে কোর্টে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে মিঠু রনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় ।এই প্রেক্ষিতে পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলি নির্দেশে অভিযান চালিয়ে ।
হৃদয় মিয়া ,সুজাত মিয়া ও জুয়েল মিয়া কে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে রাঙ্গামাটি পার্বত্য এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে ।পরে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তারাও পুলিশের কাছে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে ।এরমধ্যে মামলায় এজাহারভুক্ত ৮ জন আসামির মধ্যে ৬জনই গ্রেপ্তার হয়েছে, বাকি দুজনকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে ।

ছবি : প্রেসব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখছেন জেলা পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলি

এর আগে ওই ঘটনায় ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নির্যাতিতা নববধূর স্বামী বাদী হয়ে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ ৮ জনের আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। বিচারক জিয়াউদ্দিন মাহমুদ মামলাটি আমলে নিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এফআইয়ার করতে লাখাই থানার অফিসার্স ইনচার্জ কে নির্দেশ দিয়েছিলেন ।
মামলার অভিযুক্ত আসামিরা হলেন মোড়াকড়ি গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে মুছা মিয়া (২৬), ইব্রাহীম মিয়ার ছেলে মিঠু মিয়া (২১), পাতা মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া (২২), বকুল মিয়ার ছেলে সুজাত মিয়া (২৩), মিজান মিয়ার ছেলে জুয়েল মিয়া (২৫), ইকবাল হোসেনর ছেলে সোলায়মান রনি (২২), ওয়াহাব আলীর ছেলে মুছা মিয়া (২০), রুকু মিয়ার ছেলে শুভ মিয়া (১৯)।
জানা যায়, গত ২৫ আগস্ট ধর্ষণের শিকার ওই নারী তার স্বামী ও স্বামীর বন্ধুকে নিয়ে কৃষ্ণপুর গ্রামের পাশের টিক্কাপুর হাওড়ে নৌকা ভাড়া করে নৌকা ভ্রমনে যান।ওইদিন দুপুরে ইঞ্জিনচালিত আরেকটি নৌকায় করে অভিযুক্ত আসামিরা তাদেরকে গতিরোধ করে। এ সময় মুছা মিয়া, সুজাত মিয়া, জুয়েল মিয়া ভিকটিমের স্বামী স্বামীর বন্ধু ও নৌকার মাঝি কে প্রচন্ড রকম মারধর করেন। এরপর অভিযুক্তরা গৃহবধূর স্বামী স্বামীর বন্ধুকে তাদের ইঞ্জিনচালিত নৌকায় গুড়ায় হাত পা বেঁধে রাখেন।
নৌকার মাঝি কে খুন করার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক হাওরের সুইচগেট এ নৌকাটি নিয়ে যেতে বাধ্য করেন। সুইচ গেটে নৌকাটি বেঁধে রেখে অভিযুক্ত সকল আসামীরা নৌকাটিতে উঠে পালাক্রমে নববধূকে গনধর্ষণ করেন।  এরপর যাবার সময় আবারো ধর্ষিতার স্বামী ও স্বামীর বন্ধু কে ধর্ষকেরা মারধর করে তাদের শরীরের সকল কাপড়-চোপড় খুলে ধর্ষিতার পাশে শুইয়ে দিয়ে তাদের উলঙ্গ অবস্থায় ছবি ও ভিডিও ধারন করেন।
পরবর্তীতে ওই ভিডিও দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে ৯ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা না দিলে এসব ভিডিও ভাইরাল করে দেবেন বলে ধর্ষকেরা হুমকি দেন। এসময় এ ঘটনা নিয়ে কোনো প্রকার মামলা-মোকদ্দমা কিংবা লোক জানাজানি করলে তাদেরকে হত্যা করে লাশ পানিতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি দেয় ধর্ষণকারীরা।
লোকলজ্জায় ও অত্যন্ত প্রভাবশালী ধর্ষকদের ভয়ে ধর্ষিতার চিকিৎসা না করে তার স্বামী ও স্বামীর বন্ধু পার্শ্ববর্তী নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। কিন্তু পরবর্তীতে ধর্ষিতার শারীরিক অবস্থার মারাত্মক অবনতি হওয়ায় তাকে ১ সেপ্টেম্বর হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • Sushanta.D.Gupta-Facebook

    Facebook Pagelike Widget
  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

লাখাইয়ে পানিতে ডুবে দুই বোনের মর্মান্তিক মৃত্যৃ

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!