previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  বাহুবল  >  বর্তমান নিবন্ধ

কনক দেবের সেই চেয়ার সরানো হয়েছে : দৈনিক আমার হবিগঞ্জে সংবাদ প্রকাশের পর

 এপ্রিল ৫, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

স্টাফ রিপোর্টার :  বাহুবল উপজেলা পরিষদের কর্মচারী কম্পিউটার অপারেটর কনক দেব মিঠুর ব্যবহার করা চেয়ারটি অবশেষে সরিয়ে ফেললেন উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিলুফার ইয়াছমিন। সোমবার (৫এপ্রিল) সকাল ১১টারদিকে চেয়ারটি সরিয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষের বসার একটি চেয়ার দেয়া হয়।
এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান বলেন-বিষয়টির বাস্তবতা উপলব্ধি করেই আমরা চেয়ারটি সরিয়ে দিয়েছি। উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে কনক দেব মিঠু সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানদ্বয় আব্দুল কাদির চৌধুরী ও মোঃ আব্দুল হাই’র আমলে তাদের ব্যবহার করা স্মৃতিস্বরূপ সংরক্ষিত চেয়ারটি মিঠু কৌশলে নিয়ে নিজে ব্যবহার করা শুরু করে।

ছবি : কম্পিউটার অপারেটর কনক দেব মিঠুর ফাইল ছবি

বিষয়টি স্থানীয় সাংবাদিকদের নজরে এলে তা নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে সর্বত্র শুরু হয় তোলপাড় সমালোচনা। অনেকে মিঠুর এই আচরণকে ন্যাক্কারজনক বেয়াদবী হিসেইে দেখছেন। দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পএিকা  প্রিণ্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় মিঠু ও ইউএনও’এর বিভিন্ন বালু মহাল সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় মিঠুর ভূমিকা ও ভাবভঙ্গি নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে ‘টপ অব দ্যা বাহুবল’ এ রূপ নেয়। মিঠুর অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে ধারাবাহিক প্রতিবেদনে বেরিয়ে আসতে থাকে ৯ বছরের চাকুরি জীবনে কোটিপতি হওয়ার গল্প।
  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

এমপি মিলাদ গাজীর সুস্থ্যতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!