previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  বানিয়াচং  >  বর্তমান নিবন্ধ

বানিয়াচংয়ে যুবলীগ নেতাকে সমাজচ্যুত করার ঘোষণা দিল গ্রাম্য মাতব্বররা !

যুবলীগ নেতা অলফুজ খানকে হাট-বাজারে ও রাস্তাঘাটে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পাশাপাশি মহল্লার ফান্ডের টাকা থেকেও বঞ্চিত করার নির্দেশনা প্রদান করেন কথিত মাতব্বররা।

 ফেব্রুয়ারী ২২, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

বানিয়াচং প্রতিনিধি : বানিয়াচংয়ে ছান্দ প্রথার রোষানলে পড়েছেন যুবলীগ নেতা অলফুজ খান। বিদ্যালয়ের সীমানা সংক্রান্ত বিরোধের কারনে ছান্দ সর্দারের নির্দেশে তাকে সমাজচ্যুত করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী যুবলীগ নেতা অলফুজ খান বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে সমাজচ্যুত করার কারণে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। গত ২০ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১১টায় বানিয়াচং উপজেলার ২ নম্বর উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়নের সৈদ্যারটুলা মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা যায়, বানিয়াচং উপজেলার তোপখানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিতে নতুন বিল্ডিংয়ের নির্মাণ কাজ চলছে। বিদ্যালয়ের জমির পাশেই অভিযোগকারী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহ তথ্যও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অলফুজ খানের পারিবারিক জমি রয়েছে। ভবন নির্মাণ করাকালে অলফুজের জমিতে বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের একাংশের কলাম স্থাপন করায় তিনি ঠিকাদারকে কাজ করতে বাধা প্রদান করেন। বাধা প্রদান করায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আসাদ খান ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে হামলা করতে উদ্বত হন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে এ বিষয়ে ছান্দের সর্দারদের নিয়ে (সাতটি মহল্লা মিলে গঠিত ছান্দ) পঞ্চায়েত ডাকা হয়।

ওই এলাকার ছান্দ সর্দার এনামূল হোসেন খান বাহার,সর্দার আবু তালেব তালহা, জামায়াত নেতা ইকবাল বাহার খানসহ কতিপয় লোক একতরফাভাবে অলফুজ খানের উপর দোষ চাপিয়ে দিয়ে তাকে মহল্লার সদস্য পদ থেকে আজীবনের জন্য বহিস্কারের ঘোষনা দেন। যুবলীগ নেতা অলফুজ খানকে হাট-বাজারে ও রাস্তাঘাটে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পাশাপাশি মহল্লার ফান্ডের টাকা থেকেও বঞ্চিত করার নির্দেশনা প্রদান করেন কথিত মাতব্বররা।

 

 

ছবি : সমাজচ্যুত যুবলীগ নেতা অলফুজ খান এর ফাইল ছবি

 

 

সে যাতে কারো সাথে কথা বলতে না পারে এমনকি কারো সাথে যোগাযোগ করতে না পারে সে জন্য রাখা হয়েছে জরিমানার বিধানও। ভূক্তভোগী অলফুজ খান জানান,আমি নিরীহ একজন মানুষ। আমার দাদার দান করা জমিতে বিদ্যালয়টি স্থাপন করা হয়েছে। বিদ্যালয়ের পাশের জমিটিও আমাদের পরিবারের। নতুন করে বিল্ডিং তৈরি করার সময় ঠিকাদার ইচ্ছাকৃতভাবে আমার জমিতে ভবনের কলাম স্থাপন করায় আমি প্রতিবাদ করেছি। অথচ মহল্লা ও ছান্দবাসী অযথা আমাকে সমাজচ্যুত করাসহ প্রাণ নাশের হুমকি দিচ্ছেন। আমি এর বিচার চাই।

ছান্দ সর্দার এনামূল হোসেন খান বাহারের সাথে মোবাইলে সাংবাদিক পরিচয়ে কথা বলতে চাইলে পরে কথা বলবেন বলে ফোনের লাইন কেটে দেন।

এই বিষয়ে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন,অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চ উপলক্ষে বানিয়াচংয়ে আলোচনা সভা ও মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!