previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  নবীগঞ্জ  >  বর্তমান নিবন্ধ

নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ রোডের স্পিড ব্রেকারগুলো যেন মরণ ফাঁদ

 ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

মোফাজ্জল ইসলাম সজীব, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি।।  সাধারণত সড়কে দুর্ঘটনা কমাতে আঞ্চলিক সড়কগুলোতে স্পিড বেকার দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে কোনো রকম নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই পরিকল্পিতভাবে স্পিড ব্রেকার তৈরি করা হয়েছে নবীগঞ্জ হবিগঞ্জ সড়কে। এতে যাতায়াতকারী যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এরই মধ্যে ব্যক্তি-উদ্যোগে যত্রতত্র স্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য স্পিড ব্রেকার যার কারণে উপকারের চেয়ে ক্ষতেই হচ্ছে বেশি। স্পিড ব্রেকার এগুলোর আগে-পরে নেই কোন প্রতীক চিহ্ন,ও লেখা নেই কোন সতর্কবাণী। এমন কি রং দিয়ে চিহ্নিত করা হয়নি ওই স্পিড ব্রেকার গুলো। কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে প্রায় অনেকদিন হয়।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নবীগঞ্জ থেকে হবিগঞ্জ খোয়াই নদী পর্যন্ত, প্রায় ৪০ কিলোমিটার রাস্তায় ৩৬ টি গতিরোধক স্পিড ব্রেকার রয়েছে। শুধুমাত্র আউশকান্দি বিশ্বরোড থেকে নবীগঞ্জ পর্যন্ত ২০ কি.মি রাস্তায় অনেকটি স্পিড বেকার রয়েছে। একেক জায়গায় দেওয়া হয়েছে তিনটি করে স্পিড ব্রেকার। কিছু কিছু স্পিড ব্রেকার এতটাই উঁচু যে উপর দিয়ে গাড়ি চালানোর সময় ঝাকুনির  সৃষ্টি হয়।  এ নিয়ে ড্রাইভারদের সাথে প্রায়ই যাত্রীদের কথা কাটাকাটি ও ঝগড়া সৃষ্টি হচ্ছে।

ছবি : ইন্টারনেট থেকে নেয়া

এসব রাস্তায় যাতায়াতকারী রোগী ও শিশুরা ঝুঁকুনিতে প্রায় অসুস্থ হয়ে পড়েছেন । সড়কের পাশে কেউ নতুন বাড়ি নির্মাণ করলে,সেখানে দেওয়া হয় একটি স্পিড ব্রেকার। আর হাট- বাজার দোকান থেকে শুরু করে চা দোকানের সামনে অবাধে স্পিড ব্রেকার নির্মাণ করায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। অনেক সময় বিভিন্নভাবে পাকা সড়কের ওপর ইট ও মাটি দিয়ে অস্থায়ীভাবে নির্মাণ করে গাড়ির পথরোধ করার চেষ্টা করছে অসচেতন মহল।
লোকমান হুসাইন নামে এক মোটরসাইকেল চালক জানান, উঁচু স্পিড বেকার গুলোতে গাড়ি গতি কমিয়ে উঠার চেষ্টা করলে ও গাড়ি স্পিড ব্রেকার উপর উঠতে চায়না । তাই বাধ্য হয়ে জোরে চালিয়ে উঠতে হয়। মাঝেমধ্যে ওই স্পিড বেকার গুলোতে উঠতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন মোটরসাইকেল চালকরা।
স্থানীয়রা জানান, অপরিকল্পিতভাবে নির্মিত এই স্পিড ব্রেকার গুলোর কারণে সাইকেল, ভ্যান, মোটরসাইকেল, চালকরাও সমস্যায় পড়েছেন। প্রতিদিন ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে। সড়ক ও জনপদ (সওজ) নবীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দুর রহমানের সাথে এই বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে উনার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটি ব্যস্ত থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।
এলাকাবাসীর দাবি শীঘ্রই স্পিড ব্রেকার গুলোতে রঙ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক। জনস্বার্থে যেখানে স্পিড ব্রেকার প্রয়োজন শুধু সেখানেই স্পিড ব্রেকার থাকবে ।  বাকি সব স্পিড ব্রেকার গুলো অপসারণ করা হোক এটা প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানিয়েছেন এলাকার সর্বস্তরের জনগণ।
  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আউশকান্দিতে সড়ক দূঘর্টনা আহত ২০

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!