previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  বানিয়াচং  >  বর্তমান নিবন্ধ

বানিয়াচংয়ে সাবেক চেয়ারম্যান, কৃষকলীগ নেতা হুমায়ুন কবীর রেজাকে খুঁজছে পুলিশ

জামিন অযোগ্য ধারায় সরকারি সম্পদ আত্নসাত মামলায়।

 ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

ছবি : সরকারের অর্থ আত্নসাত মামলায় এফআইআরভুক্ত আসামি কৃষকলীগ নেতা হুমায়ুন কবীর রেজার ফাইল ছবি।

 

রায়হান উদ্দিন সুমন : সরকারি ভূমিতে অনধিকার প্রবেশ,ভূমিহীনদের নামে বন্দোবস্ত সরকারি খাস ভূমি প্রতারণামূলকভাবে আত্নসাত,ওই ভূমি থেকে মাটি খনন করে বিক্রি,গাছ কর্তন করে বিক্রি এবং মাছ বিক্রিসহ সর্বমোট ৩ কোটি ৩২ লাখ ৬৮ হাজার সরকারি রাজস্ব আত্নসাত করার অভিযোগে গত রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দায়ের করা মামলায় বানিয়াচং উপজেলার ১১নং মক্রমপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান,জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সদস্য হুমায়ুন কবীর রেজা’র বিরুদ্ধে করা মামলাটি এফআইআর ভুক্ত করা হয়েছে।

গত সোমবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) এই মামলাটি এফআইআর’এ অন্তর্ভুক্ত করেন বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরান হোসেন ও তদন্ত ওসি প্রজিত কুমার দাস। মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বানিয়াচং থানার ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) সাইফুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। মামলাটি এফআইআর হওয়ায় মামলার আসামি হুমায়ুন কবীর রেজাকে যে কোন সময় আটক করে আদালতে সোপর্দ করবে পুলিশ-এমনটা ই দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে জানিয়েছেন বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমরান হোসেন।

তিনি আরো জানান,আসামি হুমায়ুনকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। যে কোনো সময় তাকে আটক করা হবে। সরকারের কোটি কোটি টাকা আত্নসাতের অভিযোগ বানিয়াচং থানায় গত রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বরাবরে এই মামলাটি দায়ের করেন খাগাউড়া ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো: দিদার হোসেন।

প্রসঙ্গত, বানিয়াচং উপজেলার ১১নং মক্রমপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত সুলতানপুর মৌজার এসএ জেএল নং-২০০ আরএস জেএল নং-২০৫, খতিয়ান নং-১ এর দাগ নং ৯১, ৯৩ ও ১৩৩ এর মোট ১৪ একর ৪৫ শতক ভূমি বিগত ১৯৮৮ সনে এলাকার ভূমিহীনদের নামে লিজ প্রদান করে বানিয়াচং উপজেলা ভূমি অফিস। কিন্তু লিজ দেয়ার পর এ ভূমিতে কোনো ধরনের স্থাপনা নির্মাণ না করে পতিত ফেলে রাখেন ভূমিহীনরা। পরে ২০১০ সালে এলাকাবাসী ও ভূমিহীনদের মধ্যে এই ভূমি নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এই সংঘর্ষে শফিক মেম্বার নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। ঘটনায় আসামি করা হয় এই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা কৃষকলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবীর রেজাকেও। হত্যার ঘটনার বিষয়টি পরবর্তীতে সমাধান হলে এলাকার নিরীহ ভূমিহীনদের নানা প্রলোভন, ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের কাছে পুরো ভূমিসহ কাগজপত্র নিয়ে নেন জেলা কৃষকলীগ সভাপতি হুমায়ুন কবীর রেজা।

সরেজমিনে ওই ভূমিতে গিয়ে দেখা যায়,হুমায়ুন কবীর রেজার ছোট ভাই মরহুম সামায়ুন কবীরের নামে “সামায়ুন কবীর হাফিজিয়া মাদ্রাসা” নির্মাণ করেছেন। পাশাপাশি ওই মাদ্রাসার জন্য আরেকটি নতুন ভবন গড়ে তোলার জন্য কাজ শুরু করেছেন তিনি। অন্যদিকে পুকুরের দক্ষিণ অংশে মাছ চাষ ও পুকুরের পাড়ে রোপন করা নানা জাতের গাছ বিক্রি করে হুমায়ুন কবীর রেজা হাতিয়ে নিয়েছে কোটি কোটি টাকা। আংশিক জায়গায় মাদ্রাসা নির্মাণ করে পুরো ১৪একর জায়গা দখল করে রেখেছন জেলা কৃষকলীগ সভাপতি হুমায়ুন কবীর রেজা।

এটা নিয়ে দৈনিক আমার হবিগঞ্জসহ বিভিন্ন খবরের কাগজে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর পুরো জেলা জুড়ে রসালো আলোচনার সৃষ্টি হতে থাকে। সংবাদ প্রকাশের পর হুমায়ুন কবীর রেজা নিজেকে রক্ষা করতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করতে থাকেন বিভিন্ন জায়গায়। ঝঁড় উঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

বানিয়াচং থানা পুলিশের বিশেষ অভিযান : গ্রেফতার ৫

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!