previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  আজমিরীগঞ্জ  >  বর্তমান নিবন্ধ

আজমিরীগঞ্জে প্রশিক্ষনের নামে হরিলুট !

অটোরিকশা চালকের পরিবর্তে চা -কলা বিক্রেতা, কৃষক মাঝি, ছাত্র, পাগল প্রশিক্ষণ নিয়েছেন

 ফেব্রুয়ারী ১১, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

 দিলোয়ার হোসেন :   আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় সিএনজি অটোরিকশা চালকদের প্রশিক্ষনের নামে অর্থ হরিলুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রশিক্ষনে ১০/১২জন প্রকৃত চালক ছাড়া বাকি প্রশিক্ষনার্থীরা ছিলেন সরকারি দলের নেতাকর্মী, ছাত্র, চা বিক্রেতা কলা , মুদি ব্যাবসায়ী ও কৃষক। এমন কি মস্তিস্ক বিকৃত বলে পরিচিত এক ব্যক্তি প্রশিক্ষনে অংশ নিয়েছেন। অভিযোগে প্রকাশ, উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৯, ১০ ও ১৪ ১৫ ফেব্রুয়ারি ৪দিন ব্যাপী ৬০ জন সিএনজি অটোরিকশা চালকদের জন্য প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয়।

 

জাইকা‘র অর্থায়নে আজমিরিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বুধবার সকালে কথিত চালক প্রশিক্ষন দেওয়া হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রশিক্ষনে ৫৮ জন অংশ গ্রহন করেন। অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রশিক্ষনে অংশ নেওয়া সকলকে নগদ ১১শ টাকা, দুপুরের খাবার, ১টি করে ফাইল , খাতা কলম দেয়া হয়েছে।

মজার বিষয় হচ্ছে ৪দিনের প্রশিক্ষণ আয়োজন করা হলেও উপস্থিতির শীটে একদিনেই (৯ ফেব্রয়ারি) সকলের উপস্থিতির স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে। প্রশিক্ষনে অংশ গ্রহনকারিদের মধ্যে কয়েকজনের পরিচয় পাওয়া গেছে,তাদের মধ্যে রয়েছেন ছাঁই বিক্রেতা চন্দন সরকার, চা বিক্রেতা ইমরান মিয়া, মোশাহিদ মিয়া, ছাত্র অপু মিয়া, অন্তর সূত্রধর, লিমন মিয়া,তার পিতা পৌর যুবলীগের সভাপতি মন্টু মিয়া মোটর চালক আশিকুল মিয়া, সাদ্দাম মিয়া, নৌকা চালক নিজাম মিয়া, কৃষক জুয়েল মিয়া, বেকার পায়েল মিয়া, মুদি ব্যবসায়ী আব্দুর গাফ্ফার, আব্দুল গফুর,কলা বিক্রেতা স্বাধীন মিয়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোমিনুর রহমান সজিবের বোন জামাই কৃষক মোফাজ্জল মিয়া, আত্নীয় জুয়েল মিয়া,পৌর যুবলীগ নেতা মন্টু মিয়া, যুবলীগের কর্মী মোশারফ মিয়া, মাসুম মিয়া, ওমর ফারুক, সাগর মিয়া, হৃদয় মিয়া, আজমিরিগঞ্জ উপজেলা সদরে মস্তিস্ক বিকৃত বলে পরিচিত মাখন মিয়া।

 

ছবি : প্রশিক্ষণের ছবি

 

 

প্রশিক্ষন আয়োজন কমিটির সভাপতি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোমিনুর রহমান সজিবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রকৃত সিএনজি অটোরিকশা চালকরাই প্রশিক্ষন নিয়েছেন দাবি করে সকল অভিযোগ মিথ্যা এই বলে মোবাইল বন্ধ করে দেন। প্রশিক্ষনের সমন্বয়ক ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জাহাঙ্গির আলম।

 

প্রশিক্ষনের ব্যয় নির্বাহের জন্য তাকে ১লাখ ৩৩ হাজার ৬শ ৪০ টাকা উপজেলা পরিষদ থেকে প্রদান করা হয়। জাহাঙ্গির আলমকে কয়েকবার কল দিয়েও তার সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক এসোসিয়েশনের সভাপতি শরীফ চৌধুরী বলেন,আমাদের ২শ জন সদস্য রয়েছে। প্রশিক্ষনের ব্যাপারে আমাদের সাথে কেউ যোগাযোগ করেননি। শুনেছি প্রশিক্ষনের নামে হরিলুট হয়েছে।

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউর রহমান খান দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে জানান, চালকদের তালিকা করার দায়িত্বে ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোমিনুর রহমান সজিব। কয়েকজন সাংবাদিকের মাধ্যমে জানতে পেরেছি সিএনজি চালকের পরিবর্তে অন্য পেশার লোকজনকে প্রশিক্ষন দেয়া হয়েছে। যা দুঃখজনক। কাগজপত্র পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

আজমিরীগঞ্জে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!