previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  হবিগঞ্জ সদর  >  বর্তমান নিবন্ধ

হবিগঞ্জে বিরতিহীন বাস শ্রমিকদের নৈরাজ্য : সরকারী বাস চলাচলে বাধা : জনমনে ক্ষোভ

সরকারী সম্পদ রক্ষার্থে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে: জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান

 জানুয়ারী ৭, ২০২১  /  কোন মন্তব্য নাই

স্টাফ রিপোর্টার :   সিলেট-হবিগঞ্জ ও সিলেট-মৌলভীবাজার-শ্রীমঙ্গল সড়কে বিআরটিসির বাস চলাচল ঠেকাতে মারমুখী হয়ে উঠেছেন বিরতিহীনের পরিবহন শ্রমিকরা। কারণে অকারণে সড়কে বিআরটিসির বাস চলাচলে সৃষ্টি করছেন প্রতিবন্ধকতা। শুধু প্রতিবন্ধকতাই নয়, ঘটছে মারপিট ও ভাংচুরের ঘটনাও।

 

বুধবার (৭জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া কয়েকটি ছবি পর্যালোচনা করে দেখা যায় হবিগঞ্জ থেকে সিলেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া বিআরটিসির বাসটি শায়েস্তাগঞ্জ নতুনব্রীজ গোলচত্ত¡রে পৌছলে হবিগঞ্জ-সিলেট বিরতিহীন দুটি বাস বিআরটিসি বাসের পথ অবরোধ করে রাখে। এ সময় বিরতিহীনের কিছু উশৃঙ্খল পরিবহন শ্রমিক বিআরটিসি বাসটি ভাংচুরের চেষ্টা করে। পরে বিআরটিসি বাস সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালে চাপের মুখে অবরোধ তুলতে বাধ্য হয় তারা। ঘটনাটির প্রত্যক্ষদর্শী এক যাত্রী জানান, সিলেটগামী বিআরটিসি বাসের সামনে রাস্তা আটকে দাড়ায় অন্য দুটি বিরতিহীন বাস। মূলত বিআরটিসির বাসের সময়সীমা পার করার জন্যই এ ধরনের কাজ করা হয়েছে। ঘটনাটির সুষ্ঠ বিচার না হলে তাদের অপতৎপরতা আরও বাড়বে।

 

 

ছবি : এভাবেই বিরতিহীন বাস আড়আড়ি রেখে বিআরটিসি বাস চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে পরিবহন শ্রমিকরা।

 

 

শায়েস্তাগঞ্জ নতুনব্রীজ বিআরটিসি  কাউন্টারের ম্যানেজার খলিলুর রহমান জানান, হবিগঞ্জ-সিলেট বিরতিহীনের পরিবহন শ্রমিকরা প্রতিনিয়ত বিআরটিসি বাস চলাচলে বাঁধা প্রদান করেন। গত কয়েকদিন আগে সরকারী বাসে তারা হামলা করে ভাংচুর ও চালক-শ্রমিকদের মারধর করেছেন। উল্লেখ্য, ২৭ ডিসেম্বর সকালে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কদমতলী বাস টার্মিনালে বিআরটিসির কাউন্টারে হামলা করা হয়। এ সময় হামলাকারীরা কাউন্টারে ভাংচুর চালিয়ে নগদ ১২ হাজার টাকা, একটি ল্যাপটপ ছিনিয়ে নেয় এবং কাউন্টার ব্যবস্থাপকের গাড়ি ভাঙচুর করে। হবিগঞ্জ-সিলেট বিরতিহীন বাসের ভুক্তভোগী যাত্রী আলাউদ্দিন দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার অফিসে ফোন করে অভিযোগ করে বলেন, ‘ভাই এদের জ্বালায় রাস্তাঘাটে চলা যায় না, হবিগঞ্জ থেকে নতুনব্রীজ পর্যন্ত চরম গতিতে চলে এরা। ছোট কোন গাড়ি এদের চোখে পড়ে না। এদের চলার গতিতে ছোটখাট গাড়ি ভয়ে রাস্তার নিচে পড়ে যায়। হবিগঞ্জ রোডে এদের চলাচলের গতি একটা নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে নিয়ে আসা দরকার। বিআরটিসির বাস আমাদের সরকারী সম্পদ এর রক্ষণাবেক্ষণ করা আমাদের দায়িত্ব’।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে হবিগঞ্জ জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শঙ্খ শুভ্র রায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বিষয়টি মূলত ব্যবসায়িক প্রতিযোগীতা এর বাহিরে কিছুই নয়। তবে হবিগঞ্জের বিরতিহীন পরিবহন শ্রমিকদের নানা বিষয়ে আরও উন্নতর প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। আশা করছি ভবিষ্যতে আর এ ধরনের সমস্যা হবে না।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান বলেন, ‘বিআরটিসি বাস সরকারি বাস, আমরা সরকারি চাকুরি করি। এটা যে কোন পরিস্থিতিতে আমরা চালাবো। কেউ কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারবেনা। করলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে’। এদিকে, সরকারী বাসে ভাংচুর ও প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় সচেতন মহলের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

 

উল্লেখ্য, হবিগঞ্জ সিলেট রোডে ৬টি বিআরটিসি বাসের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। পরে হবিগঞ্জ পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলনে গত ১ জানুয়ারী থেকে হবিগঞ্জ সিলেট রোডে ৬ টি বাসের পরিবর্তে ৩টি বাস চলাচলের সিদ্ধান্ত নেন জেলা প্রশাসন।

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

আবু জাহির এমপি পুত্র ইফাতসহ সকল শিল্প উদ্যোক্তাদের বিসিকে’র নোটিশ

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!