previous arrow
next arrow
previous arrownext arrow
Slider
Loading...
আপনি এখানে  প্রচ্ছদ  >  আজমিরীগঞ্জ  >  বর্তমান নিবন্ধ

আজমিরীগঞ্জে প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ

এ বিষয়ে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি (এসএমসি)’র সভাপতি মনোজিত দাস এই দুর্নীতি অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ৷

 জুলাই ২৯, ২০২০  /  কোন মন্তব্য নাই

দিলোয়ার হোসেন :   হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ সদর ইউনিয়ের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ৷
এ বিষয়ে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি (এসএমসি)’র সভাপতি মনোজিত দাস এই দুর্নীতি অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ৷
অভিযোগে জানা যায়, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের উর্দ্বভপুর গ্রাম চারদিকে পানি বেষ্টিত হওয়ায় বাচ্চাদের লেখাপড়ার জন্য গ্রামবাসীর দাবীতে স্কুলটি স্থাপনের পর ২০১৩ সালে ১ম ধাপে বিদ্যালয়টি জাতীয়করণ করা হয় ৷ ২০/০৩/২০১৯ সালে অন্য বিদ্যালয় থেকে উর্দ্বভপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করেন প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান ৷

ছবি : অভিযুক্ত শিক্ষক মতিউর রহমান ,ফাইল ছবি

যোগদানের পর থেকেই নিয়ম বহির্ভুত মাসিক রিটার্ন এ সভাপতির স্বক্ষর ,সীল থাকা স্বত্ত্বেও সাক্ষর জাল/বিনা স্বক্ষরে উপজেলা শিক্ষা অফিসে মাসিক রিটার্ন (এমআর) জমা দিয়ে আসছেন ৷ এ ছাড়াও ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ক্ষুদ্র মেরামত বাবদ ২ লক্ষ,রুটিন মেরামত বাবদ ৪০ হাজার,স্লিপ বাবদ ৫০ হাজার,প্রাক-প্রাথমিক উপকরণ বাবদ ১০ হাজার মোট ৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পায় ঐ বিদ্যালয় ৷
সভাপতির স্বাক্ষরে উক্ত টাকা উত্তোলন করে বিদ্যালয়ে ১টি টেবিল, ৪ টি চেয়ার এবং বিদ্যালয়ের চারপাশ রং করানো সহ নিজের ইচ্ছে মতো টাকা খরচ করেন প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান ৷ পরে উক্ত টাকার হিসেব জানতে চাইলে সব টাকা ব্যয় হয়ে গেছে বলে ম্যানেজিং কমিটিকে জানান তিনি ৷

ছবি : শিক্ষককের বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগের কপি

এ ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষাবর্ষের উদ্বৃত পাঠ্যবই নিয়ম বহির্ভুত ভাবে বিক্রি করেন ঐ প্রধান শিক্ষক ৷ অভিযোগে আরো বলা হয় নিয়মনীতি, অফিস সময়ের তোয়াক্কা না করে তিনি নিজের ইচ্ছে মতো বিদ্যালয়ে যাওয়া আসা করেন ৷
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি দৈনিক “আমার হবিগঞ্জকে জানান,অভিযোগে উল্লখিত বরাদ্দের টাকার কাজ আমি গত বছর সম্পন্ন করি এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে স্থানীয় মেম্বারের সামনে কাজের হিসাব বুঝিয়ে দেই। তারপরও কেন তিনি আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন তা আমার বোধগম্য নয়। সঠিক তদন্ত হলে আমি নির্দোষ প্রমানিত হব।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সফিকুর রহমান সরকারের সাথে কথা হলে তিনি দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে বলেন – অভিযোগটি পাওয়ার পর করোনা পরিস্থিতির কারনে অফিস বন্ধ থাকায় বিষয়টি দেখা হয়নি। এখন যেহেতু অফিস চলছে আমি সহকারী শিক্ষা অফিসারকে বলেছি বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য ৷
  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ সুশান্ত দাস গুপ্ত

  • যেভাবে নিউজ পাঠাবেন

    নিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ news@amarhabiganj.com এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই হবিগঞ্জ সম্পর্কিত হতে হবে।

  • জরুরী নোটিশ

    দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর প্রতিটি নিউজ ১০০ ভাগ মৌলিক। যদি কোন সংবাদকর্মী অন্য কারো বা অন্য কোন নিউজ কপি করেন এবং সেটা প্রমানিত হয় তাহলে তাকে বিনা নোটিশে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ থেকে বরখাস্ত করা হবে এবং যথারীতি আইনী প্রক্রিয়ার আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

You might also like...

আজমিরীগঞ্জে কৃষিপণ্য বিপণন প্রতিষ্ঠানে মোবাইল কোর্টের অভিযান, ৪ প্রতিষ্ঠানকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা

আরও পড়ুন →

This function has been disabled for Amar Habiganj-আমার হবিগঞ্জ.

Don`t copy text!