ঢাকাSaturday , 1 January 2022
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হবিগঞ্জে উৎসব ছাড়াই বই পেয়েছে শিক্ষার্থীরা

Link Copied!

রায়হান উদ্দিন সুমন  :  বছরের প্রথম দিনে জেলাজুড়ে বই উৎসব না হলেও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হযেছে। সারা দেশে এবারের শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ১৭ লাখ ২৬ হাজার ৮৫৬ শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদের মাঝে ৩৪ কোটি ৭০ লাখ ২২ হাজার ১৩০ কপি পাঠ্যপুস্তক বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে জানা গেছে। করোনার কারণে এবারও বই উৎসব হয়নি। 

 

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ জানান, শনিবার(১জানুয়ারি) সকাল থেকে শহরের সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, বিকেজিসি সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল, হবিগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও হবিগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজে বই বিতরণ করা হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ছবি : শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এসব প্রতিষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান। করোনাভাইরাসের কারণে বই উৎসব না হলেও বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীরা যাতে নতুন বই হাতে নিতে পারে সে জন্য নেয়া হয় নানামুখী ব্যবস্থা।

 

তাদের হাতে নতুন বই তুলে দিতে পেরে খুশি জেলা প্রশাসকও। তবে বিভিন্ন স্তরে বইয়ের কিছুটা ঘাটতি থাকায় প্রথম দিন সবার হাতে নতুন বই তুলে দিতে পারেনি প্রশাসন। জেলার সবকটি উপজেলায় ই স্বাস্থবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের হাত বই তুলে দেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,এসএমসির সভাপতি ছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন।

 

জেলা শিক্ষা কর্মতর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, এবার প্রাথমিক পর্যায়ে জেলার বইয়ের চাহিদা ১৭ লক্ষ ২হাজার ৫৬৮। ইতোমধ্যে ৮৫ শতাংশ বই পেয়েছি। অন্য বইও পেয়ে যাব। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হচ্ছে বলে নির্ধারিত সময়ের মাঝেই নতুন বই বিতরণ করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বই পাওয়ার বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে একাধিকবার মিটিং করা হয়েছে।

 

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ জানান, এ বছর মাধ্যমিক স্তরে সপ্তাহে তিন দিন করে মোট ১২ দিনে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হবে। একেকটি ক্লাসের শিক্ষার্থীরা তিন দিনে পৃথকভাবে এসে বইগুলো নিয়ে যাবে।

 

অপরদিকে প্রাথমিকে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার দিকটি ভেবে তাদের অভিভাবকদের হাতে বই তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সে মোতাবেক বই বিতরণ করা হচ্ছে। আমরা চাহিদার ৬০ শতাংশ বই বরাদ্দ পেয়েছি। অবশিষ্ট বই দ্রুতই পাব বলে প্রত্যাশা করছি।

এর আগে (বৃহস্পতিবার) রাজধানীর আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসএসসির ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরই ‘পাঠ্যপুস্তক উৎসব’ উদ্বোধন করেন।