ঢাকামঙ্গলবার , ১০ মে ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সেই বন্দুক জমা দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান ধন মিয়া

আতাউর রহমান ইমরান
মে ১০, ২০২২ ১০:০২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বানিয়াচঙ্গে সৈদ্যারটুলা নামের গ্রাম্য ছান্দের সর্দার নির্ধারণ নিয়ে দ্বন্দ্ব থেকে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রকাশ্যে বন্দুক দিয়ে গুলি করার পর থানায় বন্দুক জমা দিয়েছেন চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া। এ বিষয়ে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ এমরান হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ঘটনার পর চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়ার স্ত্রীর মাধ্যমে ওই বন্দুকটি থানায় জমা দিয়ে যান।

সংঘর্ষের সময় ধন মিয়ার ছোড়া গুলির আঘাতে কয়েক জন গুরুতর আহত হন। এ ঘটনার পর বন্দুক দিয়ে গুলি ছোড়ার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদমাধ্যমে এ বিষয়ে গুরুত্বসহকারে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ মন্তব্য করেন নিজের লাইসেন্সকৃত বন্দুক থেকে আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়েন ধন মিয়া। তবে অনেকেই মন্তব্য করেন আত্মরক্ষার্থে হয়ে থাকলে চেয়ারম্যান নিজের বাড়ি থেকেই ছুড়তেন। বাড়ি থেকে বের হয়ে এতদূর এসে লোকজনের গায়ে গুলি ছোড়ার অর্থ তিনি নিজেই আক্রমনকারী। এসব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সারাদিন দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত আহত হয়েছেন শতাধিক লোকজন। সংঘর্ষ চলাকালে প্রকাশ্যে বন্দুক দিয়ে গুলি চালান ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান ধন মিয়া। তার এই গুলি চালানোর ফলে অপর পক্ষের প্রায় ৩০/৪০ জন ব্যক্তি আহত হয়।

গত ৫ মে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ইউনিয়নের সৈদ্যারটুলা পুকুর পাড়ে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। জানা যায়, লক্ষ লক্ষ টাকার বিলের মাছ ও প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর লক্ষ্মী বাউর জলাবন সৈদ্যেরটোলা ছান্দের লোকজনের নামে ওয়াকফকৃত। এজন্য এই ছান্দ নামক
সংগঠনটির নিয়ন্ত্রণকারী হিসেবে সরদার পদটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সৈদ্যারটুলা ছান্দের সর্দার নিয়োগ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বর্তমান চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া ও সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার খানের লোকদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। কিছুদিন পূর্বে সৈদ্যারটুলঅ মহল্লায় এড. নজরুল ইসলাম খানকে সর্দার নির্বাচিত করে এলাকাবাসী।

অন্যদিকে চেয়ারম্যান ধন মিয়াকে এই মহল্লা কমিটির উপদেষ্টা করা হয়। ৪ মে বুধবার চেয়ারম্যান ধন মিয়াকে ছান্দের উপদেষ্টা পদ থেকে বহিষ্কার করে বর্তমান সৈদ্যরটুলা ছান্দের লোকরা। বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনদের মধ্যে বিগত কয়েকদিন যাবত উত্তেজনা দেখা দেয়। এরই জের ধরে গত ৫ মে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

Developed By The IT-Zone