ঢাকাSaturday , 18 March 2023
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সাংবাদিকতায় মফস্বল বা জাতীয় বলতে কিছু নেই : প্রতিদিনের সময় সম্পাদক রেজা নওফেল হায়দার

Link Copied!

সাংবাদিকতায় মফস্বল বা জাতীয় বলতে কিছু নেই। রাজধানীর বাইরে একটি সংবাদও জাতীয় সংবাদে রূপ দিতে পারে। তাই মফস্বলে বসবাসরত সাংবাদিক নিজেকে ‘হরিজন’ মনে করার প্রয়োজন নেই। দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার মাধ্যমেই দেশ ও জনগনের মঙ্গলের জন্য কাজ করে যেতে হবে।

শুক্রবার (১৭মার্চ) রাতে হবিগঞ্জে একটি অভিজাত রেস্তোরায় জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্টানে দৈনিক প্রতিদিনের সময় সম্পাদক রেজা নওফেল হায়দার এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, জেলা উপজেলায় কর্মরত একজন সাংবাদিক রাজনৈতিক ও সামাজিক বেড়াজালে থেকে কতটুকু ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেন তা রাজধানীতে বসে অনেকেই চিন্তা করতে পারেন না। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বহু সাংবাদিক রয়েছেন যারা কোন কোন ক্ষেত্রে সেন্ট্রাল ডেস্কে কর্মরত সাংবাদিকদের চেয়েও ভাল কাজ করছেন।

তিনি বলেন সাংবাদিকতার পাশাপাশি বেশি করে পড়াশুনা করতে হবে। যে কোন একটি বিষয়ে ‘বিশেষঞ্জ’ হওযার পরামর্শ দেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন,হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রুহুল হাসান শরীফ, শোয়েব চৌধুরী, রাসেল চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাসুদ আলী ফরহাদ, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ দাশ সাগর, ইনডিপেনডেন্ট টিভির জেলা প্রতিনিধি মোঃ নূরুজ্জামান চৌধুরী শওকত, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারন সম্পাদক শাকিল চৌধুরী প্রমুখ।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টিভি জানালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল হালিম, দৈনিক স্বদেশ বার্তার নির্বাহী সম্পাদক মুজিবুর রহমান, প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফয়সল চৌধুরী, দৈনিক যায় যায় দিনের প্রতিনিধি নূরুল হক কবীর, বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতিনিধি জাকারিয়া চৌধুরী, দৈনিক বিজয়ের প্রতিধ্বনি সম্পাদক আনিসুজ্জামান চৌধুরী রতন দৈনিক প্রভাকর সম্পাদক সহিবুর রহমান.,গ্লোবাল টিভির প্রতিনিধি এম এ আজিজ সেলিম, মাইটিভি জেলা প্রতিনিধি নিরঞ্জন গোস্বামী।

পরে হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ছালেহ আহমেদ চৌধুরী রিপন ও ক্রোয়েশিয়া প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলী চৌধুরীর হাতে পরিচয়পত্র তুলে দেন প্রতিদিনের সময় সম্পাদক রেজা নওফেল হায়দার।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি সালেহ চৌধুরী রিপন প্রতিদিনের সময় সম্পাদক রেজা নওফেল হায়দার ও মোহাম্মদ আলী চৌধুরীকে হবিগঞ্জ সফর উপলক্ষে ‘শুভেচ্ছা স্মারক’ প্রদান করেন।