ঢাকাSaturday , 6 July 2024
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সংসদ সদস্য সায়েদুল হক সুমনের আত্মীয় পরিচয়ে নিয়োগ বাণিজ্য : টাকা আত্মসাৎ

Link Copied!

হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনের আত্মীয় পরিচয়ে সরকারি চাকুরী পাইয়ে দেয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ করার ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্ত ব্যক্তি মাধবপুর উপজেলার সুরমা চা বাগানের মৃত মোশারফ হোসনের পুত্র জালাল হোসেন। তিনি স্থানীয় শাজাহানপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়ার পর চারদিকে সমালোচনার ঝড় বইছে। সুত্র জানায়, সুরমা চা বাগানের শ্রমিকদের সভাপতি (২২টি চা বাগানের সভাপতি) রবীন্দ্র গোড়ের শালা কাজল রাজবংশীকে সরকারি চাকুরী পাইয়ে দেয়ার আশ্বাসে নগদ ১ লাখ টাকা গ্রহন করেন জালাল হোসেন।

এ ঘটনার বেশ কয়েকদিন পার হয়ে যাওয়ার পর চাকুরী না পাওয়ায় বিষয়টি জানাজানি হয় সবার মাঝে। এদিকে, কোন উপায়ান্তর না পেয়ে জানাতে বাধ্য হয়েছেন হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনকে। জালাল হোসেন বিভিন্ন জায়গায় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনকে আত্মীয় পরিচয় দিয়ে থাকেন বলে জানা গেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া এক ভিডিও বক্তব্যে ‘জনগনের আলো’ নামে এক সংগঠনের নারী নেত্রী নাজমা জানান, রবীন্দ্র গোড় নামে চা শ্রমিক নেতার শালাকে চাকুরী প্রদানের নামে ১ লাখ টাকা নিয়েছেন জালাল হোসেন।

এ ঘটনাটি দীর্ঘদিন পার হওয়ায় পর ও চাকুরি দিতে পারেননি জালাল হোসেন। যাবতীয় তথ্য প্রমাণও তার কাছে এবং বিষয়টি তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনকে অনুরোধ করেন তিনি। সংবাদ কর্মীকে দেয়া এক বক্তব্যে চা শ্রমিক নেতা রবীন্দ্র গোড় জানান, এ বিষয় নিয়ে তিনি আর কথা বলতে চান না। সমাধানের দিকে যাচ্ছে, ১ মাস সময় চেয়েছেন জালাল।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জালাল হোসেনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, প্রবাসে যাতায়াতকালে রবীন্দ্র গোড়ের সাথে তার একটা লেনদেন ছিল। তবে সেটা চাকুরী সংক্রান্ত না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বক্তব্য প্রদানকারী ওই নারী মানসিক রোগী।