ঢাকাThursday , 23 March 2023
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শোকরগোজার পাঠশালায় রোটারি ক্লাব অব উত্তরা’র অনুদান ও শিক্ষা উপকরণ প্রদান

Link Copied!

মানুষ মানুষের জন্য । অজানা কিছু মানুষ তাদের সেবা দিয়ে ভালবাসায় সিক্ত করল গুঙ্গিয়াজুরী হাওরের সুবিধা বঞ্চিতদের জীবন। রোটারি ক্লাব উত্তরার রোটারিয়ানরা এগিয়ে এলেন শোকরগোজার সেবালয়ের সেবাকে এগিয়ে নিতে।

শোকরগোজার’ একটি ‘সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। সষ্ট্রার সন্তুষ্টির জন্য ৩৬ বিঘা জায়গার ওপর গড়ে ওঠছে শোকরগোজার দাতব্য সেবালয়। ২০২১ সালে বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন প্রাপ্ত এই দাতব্য সেবালয়টি বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তম সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তুলতে কাজ করছেন সংশ্লিষ্টরা।

দূর্গম হাওরে এ পর্যন্ত শত প্রতীকূলতায় শোকরগোজার দাতব্য সেবালয় তার সেবাখাতগুলো চলমান রেখেছে। ২০১৯ সালে সার্বজনীন প্রার্থনালয় স্থাপন।

২০২০ হতে ইফতার আয়োজন ও নিয়মিত বছরের দুটি ঈদ নামাজের জামাতের আয়োজন ও সকলকে সেমাই মুখ আয়োজন। ঈদুল আযহায় কোরবানি সম্পন্ন ও দরিদ্রদের মাঝে কোরবানির গোশত বণ্টন।

আনোয়ারপুর গ্রামে শোকরগোজার মসজিদ ও মক্তব নির্মাণ করে সেখানে প্রতি ওয়াক্তে নামাজ ও মক্তবে শিশুদের কোরআন শিক্ষা দানের ব্যবস্থাপনা। হাওরের দরিদ্র নিরক্ষর শিশুদের শিক্ষাদানে বিনামূল্যে শিক্ষাদানসহ সকল শিক্ষা উপকরণ প্রদানে দান।

এছাড়াও দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের পরিবারের কাছে প্রতিমাসে ১০ তারিখে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান। ইতোমধ্যে এই সকল কার্যক্রমের সাথে ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসে চালু হয়েছে হবিগঞ্জ মাস্টার্স কোয়াটারস্থ ‘সালাম ভিলা’র ৪র্থ তলায় স্থায়ী কার্যালয়ে ‘শোকরগোজার নূর মদিনা নূরানি হেফজখানা’।

যেখানে এতিমদের বিনামূল্যে খাওয়াদাওয়াসহ কোরআন ও সুন্নাহর জ্ঞান দেয়া হয় অভিজ্ঞ মহিলা হাফেজার মাধ্যমে।

দ্বীন ও দুনিয়ার কল্যাণ অর্জনে সকল কাজ মানুষের সেবার মাধ্যমেই হতে পারে, এ বিশ্বাসকে আরও এগিয়ে নিতে শোকরগোজারের এ সকল সেবামূলক কাজে সহায়তা দিয়ে ঢাকাস্থ রোটারি ক্লাব অব উত্তরার রোটারিয়ানা শোকরগোজার পাঠশালার শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেস, শ্রেণী কক্ষের আসবাবপত্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের পরিবারের সদস্যদের উপকরণ সহায়তাসহ দুঃস্থদের মাঝে টিন প্রদান করেন।

রোটারি ক্লাব অব উত্তরার একলক্ষ টাকা অনুদান প্রাপ্তির বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির দাতা আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বলেন, আমরা আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে বলতে চাই, শোকরগোজার সেবালয়ের সেবাখাতকে আরও প্রস্তুত করতে আমরা কাজ করছি। আমরা উত্তরা রোটারি ক্লাবের সকল রোটারিয়ানদের কাছে কৃতজ্ঞ। তারা শোকরগোজারের সেবাদানে আমাদের পাশে সবসময় পাশে থাকবেন এ-কামনা করি’।

বুধবার (২২মার্চ) রোটারি ক্লাবের সেবাদানে স্থানীয় লোকজন, সেবা গ্রহীতা ও শোকরগোজার পাঠশালার কমিটির সভাপতি ও এর সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শোকরগোজার পাঠশালার শিক্ষার্থী জ্যোতি বলেন, আমরা খুব খুশি, আমাদের শ্রেণীকক্ষ এখন আগের চেয়ে অনেক-অনেক সুন্দর হয়েছে । শিক্ষার্থীর এক মা সেলিনা বলেন, ‘আমরা আগে সন্তানকে মাছ ধরতে সকাল সকাল বিলে ফাটাইতাম, শোকরগোজার আমরারে অভ্যস্ত করছে ভোরে ওইটা বাচ্চাকাচ্চারে মক্তব ও স্কুলে ফ্যাটাইতে।

আজকে বাচ্চারে পড়াশোনায় পাঠাইয়া আমি পুরস্কার ফ্যাইয়া খুব খুশি। শোকরগোজার আর রোটারি ক্লাব উত্তরার হক্কলরে আল্লাহ ভালা রাখ্যুইন’’। রোটারি ক্বাব অব উত্তরা ও শোকরগোজার দাতব্য সেবালয় যৌথ সেবাদানে এসব উন্নমন কর্ম চলমান রয়েছে। আশা করা যায় এই সহায়তা ঈদ পরবর্তী সময়ে শেষ করা সম্ভব হবে।

বুধবার রোটারি ক্লাব অব উত্তরা ও শোকরগোজার দাতব্য সেবালয়ের আয়োজনে হারুন অর রশিদ, দীলিপ চন্দ দাশ, ফয়সল আহমেদ, পলাশ মিয়া, কাসন মিয়া, মসজিদ ইমাম ইমাম উদ্দিন ও শিক্ষক রণজিৎসহ অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আয়োজনটি সফল হওয়ায় মুঠোফোনে রোটারি ক্লাব অব উত্তরার পক্ষ হতে সভাপতি: রোটারিয়ান মোহাম্মদ শামছুল করিম রুকু, সাধারণ সম্পাদক রোটারিয়ান মনোয়ারা বেগম মুন্নি শোকরগোজার দাতব্য সেবালয়কে ধন্যবাদান্তে সবসময় সার্বিক সহায়তা দিতে আন্তরিক ইচ্ছা প্রকাশ করেন।