ঢাকাশুক্রবার , ১২ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শিক্ষিকা সুপ্তা রানীর শেষকৃত্য সম্পন্ন

খায়রুল ইসলাম সাব্বির
আগস্ট ১২, ২০২২ ৯:৪৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার ফরিদপুর নামকস্থানে অটোরিকশা (সিএনজি) দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে নিশাপট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী স্কুল শিক্ষিকা সুপ্তা রাণী দাশের। এই মৃত্যু নিয়ে শুরু হয়েছে হয়েছে রহস্য। কেউ বলছে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু আবার কেউ বলছে ইজ্জত বাঁচাতে সিএনজি থেকে লাফ দিয়ে মৃত্যু হয়েছে এখনো জানা যায়নি মৃত্যুর আসল কারণ।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকালে দূর্ঘটনার আহত হয়ে প্রথমে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিহত সুপ্তা রাণী দাশকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিকেলে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

নিহত সুপ্তা রানী হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের মাহমুদপুর গ্রামের বাসিন্দা পবিত্র দাশের মেয়ে এবং দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক সুশান্ত দাস গুপ্তের ভাগ্নী। তিনি শায়েস্তাগঞ্জ নিশাপট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ সম্পাদক ও প্রকাশক প্রকৌশলী সুশান্ত দাস গুপ্তসহ বিভিন্ন মহলের লোকজন।

নিহত সুপ্তা রানীর ২ বোন এবং ১ ভাই ছোট বোন হবিগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়াশোনা করছেন, সুপ্তা রানী ছিলেন পরিবারের বড়, অবিবাহিত ছিলেন তিনি, তার এই আকস্মিক মৃত্যু এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে সুপ্ত রানী দাশের নিজ গ্রাম মাহমুদপুরে শেষকৃত্য সম্পন্ন তার মৃত দেহটি শেষমেশ দেখার জন্য তার বাড়িতে ঢল নেমেছিল সাধারণ মানুষের।

সুপ্তা রানী দাশের প্রতিবেশী জানান, সুপ্তা ছিল পবিত্র দাশের বড় মেয়ে তার কাঁদে ছিল পরিবারের বোঝা তার চাকরি বেতন দিয়ে চলতো পরিবার, তার এই আকস্মিক মৃত্যু মেনে নেয়ার মতো নয় আমি জানতে পেরেছি সিলেট থেকে তার লাশ পোস্টমর্টেম করে আনা হয়েছে রিপোর্ট আসলেই মামলা করবে তার পরিবার, আমারাও চাই তাই এই আকস্মিক মৃত্যু কারণ প্রকাশ্যে আসুক বলে জানান তিনি।

Developed By The IT-Zone