ঢাকাSaturday , 7 December 2019
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বক্তৃতা দিতে পঞ্চাশ হাজার টাকা!

অনলাইন এডিটর
December 7, 2019 1:47 am
Link Copied!

লাখাই প্রতিনিধি।। হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রার্থী হতে গেলে প্রার্থী হওয়া বাবদ কোন টাকা-পয়সার দেয়ার বিধান না থাকলেও আজ টাকা না দেওয়ায় লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জনাব মাহবুব আলম মালু কে প্রার্থী হিসেবে বক্তব্য দিতে দেওয়া হয়নি।

আজ ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের পর কাউন্সিল অধিবেশনে ভোটাভুটির মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচনের সিদ্ধান্ত হয়। ভোট চলাকালীন সময়ে বলা হয় যারা জেলা আওয়ামী লীগ সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক পদে প্রার্থী আছেন তারা স্বেচ্ছায় নিজের জন্য ভোট চেয়ে বক্তব্য প্রদান করতে চাইলে করতে পারেন। এই ঘোষণার পর হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জনাব অসীম চৌধুরী, মরতুজ আলী সহ আরও কয়েকজন নিজেদের জন্য ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন।

ভিডিওঃ বক্তৃতা দিতে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া নিয়ে তর্কাতর্কির মুহূর্তের ক্লিপ। 

একপর্যায়ে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী লাখাই উপজেলার অধিবাসী জনাব মাহবুব আলম মালু বক্তব্য দিতে চাইলে তাকে বক্তব্য দিতে নিষেধ করা হয় এবং তার কাছে জানতে চান উনি টাকা দিয়েছেন কিনা? জবাবে মাহবুব আলম বলেন কিসের টাকা? কত টাকা? হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বলা হয়, পঞ্চাশ হাজার টাকা। জবাবে মাহবুব আলম বলেন এরকম তো কোনো নিয়ম নাই যে টাকা দিয়ে প্রার্থী হতে হবে। নির্বাচন কমিশন আমার কাছে কোন টাকা চাননি এবং কেন্দ্রের এরকম কোনো নির্দেশনাও নেই। তাছাড়া আমার প্রার্থীতার আবেদন পত্র ইতোমধ্যে গ্রহণ ও করা হয়েছে।

ছবিঃ মাহবুব আলম মালুর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আবেদন পত্রের কপি।

হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বলা হয়, আপনি যদি প্রার্থী হন তাহলে সংগঠনে যে চাঁদা দিতে হয় সেই টাকা তাড়াতাড়ি দলের সেক্রেটারির কাছে জমা দিয়ে আসেন; আপনাকে মাঠে নামিয়ে দিব।

এ ব্যাপারে মাহবুব আলম মালুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন নির্বাচনে আমি প্রার্থী হয়েছি কেন্দ্রের নির্দেশে এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নিয়মকানুন মেনে জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাচন আহবায়ক কমিটির কাছে আবেদনের মাধ্যমে। পত্রপত্রিকার খবরে ও আমাকে প্রার্থী হিসেবে দেখিয়ে ১৪ জন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীর নাম প্রকাশ করা হয়েছে। আমি এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।