ঢাকাসোমবার , ১ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে মিথ্যা ওয়ারিশান সনদ দিয়ে অন্যের বসতবাড়ি আত্নসাতের অভিযোগ

আতাউর রহমান ইমরান
আগস্ট ১, ২০২২ ৪:৫৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

লাখাই উপজেলার মোড়াকরি গ্রামে মিথ্যা দাদার পরিচয় ওয়ারিশান সনদে ব্যবহার করে এক ব্যক্তির বসতবাড়ি
আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে লাখাই উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর নিকট গত ৪ জুলাই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মোশাররফ মিয়া নামের এক ব্যক্তি।

জানা যায়, মোড়াকরি গ্রামের মৃত দরবেশ মিয়ার পুত্র বিলাল আহমেদ পিন্টুর দাদার নাম মৃত হাফিজ উল্লাহ। মোড়াকরি মৌজার ১/১ খতিয়ানে ১৯৭৫ নং দাগে অবস্থিত ৪ শতক পরিমান একটি জমি আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে ওই জমির মালিক মৃত নবী হোসেনের পিতা টুকু মিয়াকে নিজের দাদা হিসেবে দেখান পিন্টু।

একই সাথে নিজের পিতা দরবেশ মিয়াকে নিঃসন্তান মৃত নবী হোসেনের একমাত্র আপন ভাই হিসেবে দেখান তিনি। এভাবে মৃত নবী হোসেনের আপন ভাতিজা ভাতিজি হিসেবে নিজেদেরকে দেখিয়ে তার একমাত্র ওয়ারিশান হিসেবে বিলাল আহমেদ পিন্টু এবং তার ভাই বাবুল মিয়া, টিপু মিয়া ও বোন রোকেয়া বেগম গত ১৬ মার্চ মোড়াকরি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি মিথ্যা ওয়ারিশান সনদ নেন।

ওই ওয়ারিশান সনদ দেখিয়ে বিল্লাল আহমেদ পিন্টু ও তার ভাই বোনেরা ওই জমি নিজেদের নামে খারিজ করে নামজারি করে নেন। ওই জমিতে পাকা ঘরবাড়ি বানিয়ে আনরেজিস্ট্রি দলিল মূলে দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখলকার হিসেবে বসবাসরত মোড়াকরি গ্রামের মোশাররফ মিয়া।

এ বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মোল্লা ফয়সালকে এ ব্যাপারে অভিযোগ করলে তিনি এ বিষয়ে খোঁজখবর নেন। অভিযোগের সত্যতা পেয়ে তিনি গত ২৯ জুন ওই জমির মালিক মৃত নবী হোসেনের কোন ওয়ারিশান নেই বলে একটি প্রত্যয়ন পত্র দেন।

একই সাথে বিল্লাল আহমেদ পিন্টুর পিতা দরবেশ মিয়ার পিতা হাফিজুল্লাহ বলে প্রত্যয়ন পত্রে উল্লেখ করেন তিনি। এবং এর আগে ১৬ মার্চ তারিখে দেয়া বিভ্রান্তিমূলক ওয়ারিশান সনদ মিথ্যা ও ভুয়া বলে বাতিল করেন তিনি।

২১৩০/২১-২২ ইং নম্বর নামজারী মামলা মুলে তফসিলভুক্ত ভূমি বাতিল করে সাবেক খতিয়ানে অন্তর্ভুক্ত করতে গত ৪ জুলাই লাখাই উপজেলা সহকারী কমিশনার নিকট লিখিত আবেদন করেন ওই জমিতে বসবাসরত মোশারফ মিয়া।

এ ব্যাপারে লাখাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনকারী মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ ব্যাপারে আইনানুযায়ী উভয় পক্ষের শুনানি করে যা সত্য তাই রায় হবে।

Developed By The IT-Zone