ঢাকাTuesday , 14 March 2023
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে দুর্নীতির দায়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেশকাতুল কারাগারে

Link Copied!

লাখাই উপজেলার সাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেশকাতুল ইসলাম ভাদিকারার দুর্নীতির ঘটনায় দায়ের করা দুদকের মামলায় কারাবন্দি হয়েছেন।

আদালত সুত্রে জানা যায়, পিআইও মেশকাতুল সোমবার (১৩মার্চ) আদালতে হাজির হয়ে ওই মামলায় জামিনের আবেদন করলে জামিন আবেদন নামন্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন অতিঃ জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

এ মামলার অন্য আসামীরা হলেন বামৈ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এনামুল হক মামুন ও পিআইও অফিসের অফিস সহায়ক গোলাম কিবরিয়া। এদের দুজনের মধ্যে গোলাম কিবরিয়া ইতিমধ্যে কারাবন্দি রয়েছেন।

জানা যায়, ২০১৮-১৯ ইং অর্থ বছরে ভাদিকারা জেল খানা রোড হতে মোহাম্মদিয়া ঈদগা পর্যন্ত রাস্তা পুনঃ নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ২ লক্ষ ৮২ হাজার টাকা ও একই অর্থ বছরের বামৈ ইউনিয়নের পরিষদের উন্নয়ন বরাদ্দ ৫০ হাজার টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের সভাপতি সাবেক সংরক্ষিত সদস্য বিউটি আক্তার ও ফাহিমা বেগমকে রেকর্ড পত্রে সভাপতি দেখানো হয়। কিন্ত ফাহিমা বেগম ও বিউটি আক্তার কোন বিল উত্তোলন করেন নি।

মাষ্টার রোলে তাদের সই স্বাক্ষর জাল করে মাষ্টার রুলের কলাম নিজেরাই পুরন করে কোন কাজ না করে আসামিরা একে অন্যের সহযোগিতায় উল্লেখিত প্রকল্পের বরাদ্দকৃত ৩ লক্ষ ৩২ হাজার টাকা আত্মসাত করেন।

একই পরিষদের সাবেক মেম্বার ইকবাল মিয়া এ বিষয়ে দুদকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে তদন্তে মাঠে নামে দুদক। অভিযোগের সত্যতা পেয়ে দুদকের সহকারী পরিচালক শোয়ায়েব হোসেন বাদি হযে বামৈ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান এনামুল হক মামুন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেশকাতুল ইসলাম ও অফিস সহকারি গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর মামলা দায়ের করেন।

২০২২ সালের ২০ নভেম্বর এ তিনজনকে অভিযুক্ত হিসেবে মামলার চার্জশিট দেয় দুদক। এরপর আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।

মামলার দুই আসামি ইতিমধ্যে জেলহাজতে থাকলেও অভিযোগ রয়েছে চেয়ারম্যান এনামুল হক মামুন গ্রেফতারি পরোয়ানোভুক্ত আসামি হওয়া সত্ত্বেও প্রকাশ্য দিবালোকে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। রহস্যজনক কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না বলে তথ্য রয়েছে।

এ ব্যপারে অভিযোগকারি ইকবাল মিয়া জানান, এনাম প্রতিদিন সন্ধায় হবিগঞ্জ কোর্ট মসজিদ এর কাছে আড্ডা দেন। আমি আইন শৃংখলা বাহিনী কে আঙ্গুল দিয়া দেখিয়ে দিলাম, তারপরও তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছেনা।