ঢাকারবিবার , ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে তিব্র আকারে ছড়িয়ে পড়েছে কনজাংটিভাইটিস ভাইরাস

মনর উদ্দিন মনির
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২ ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

২ সপ্তাহ ধরে লাখাই উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে তিব্র আকারে ছড়িয়ে পড়েছে কনজাংটিভাইটিস ভাইরাস বা চোখ ওঠা রোগ।

ছোঁয়াচে হওয়ায় প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। চোখে ব্যাথা, চোখের নিচের অংশ ফুলে লাল হয়ে যাওয়া, অস্বস্থি বোধ করলে চিকিৎসকদের কাছ শরণাপন্ন হবার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। করোনায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতায় কমে যাওয়ায় আক্রান্ত সংখ্যা বাড়ছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা !

শনিবার (২৪সেপ্টেম্বর) লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহর্বিবাগের সামনে গিয়ে দেখা যায় চিকিৎসা নিতে আসা চোখে কালো চশমা, হাতে রুমাল/টিসু নিয়ে দাড়িয়ে আছনে বিভিন্ন বয়সী লোকজন। প্রতিদিন গড়ে ১শ জনের বেশি চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে বহির্বিভাগ সুত্রে জানাযায়।

জসিম (২২) নামে একজন বলেন, ১ম এ আমার চোখ ওঠে, পরে একে একে পরিবারের ৩জনের ওঠে। মুন্না (১২) নামে স্কুল শিক্ষার্থী জানান, পাশের ব্রেঞ্চে থাকা একবন্ধুর ওঠার পরে আমারও হয়ে।

ফর্মেসী ব্যাবসায়ী আশীষ দাশ বলেন, প্রতিদিন ১০/১৫ জন চক্ষু রোগী আসে, আগে মাসে ২/৩ জন আসতো। অন্য একজন ফার্মেসী ব্যাবসায়ী বলেন চোখের ড্রপের সংকট রয়েছে।।

এ বিষয়ে লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাক্তার আবু হেনা মোস্তফা জামান বলেন, কনজাংটিভাইটিস ভাইরাস আক্রান্ত রোগীগন আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিতে হবে।

কোন কবিরাজি ঔষধ বা কোন পিয়াজ বা কোন গাছ গাছরার রস ঝাড়ফুঁক যেন চোখে না দেয়। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া যেন কোন ড্রপ ব্যবহার না করে।

আক্রান্তরা উদ্বিগ্ন না হয়ে চক্ষু চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে পাশাপাশি আতঙ্কিত না হয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।

 

Developed By The IT-Zone