ঢাকাবুধবার , ১৫ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে অর্থ আত্মসাতের মামলায় বহিষ্কৃত প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার
জুন ১৫, ২০২২ ৮:১৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক উচ্চ বিদ্যালয়ের বহিস্কৃত প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিনকে জালিয়াতি করে অর্থ আত্মসাতের মামলায় জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত। তবে ওই মামলার আরেক আসামি ওই স্কুলের অফিস সহকারি শাহ মোঃ জসিম উদ্দিনের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) হবিগঞ্জ জেলা জজ কোর্টের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জাকির হোসেনের আমলী আদালত ৭ এ স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন ওই মামলাটির দুই আসামি। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি এবং স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা নুরুজ্জামান মোল্লা বাদী হয়ে গত ৬ জুন লাখাই থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলা সুত্রে জানা যায়, মুড়িয়াউক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের টিউশন ফি বাবদ সরকার হতে প্রদত্ত টাকা লেনদেনের জন্য একটি ব্যাংক হিসাব খোলা হয়। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যসচিব হিসেবে প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষরে ব্যাংক হিসাবটি পরিচালিত হয়।

নুরুল আমিন স্কুলের প্রধান শিক্ষক থাকাকালীন সময়ে ওই ব্যাংক একাউন্টের চেকে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুজ্জামান মোল্লার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ২০১৫ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে মোট ৯ বারে ৫ লক্ষ ৩৪ হাজার ৩ শত ৮০ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন।

২০২০ সালে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে নুরুল আমিনকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ হতে সাময়িক অব্যাহতি দেয়া হয়। পরবর্তীতে বিদ্যালয়টিতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে সৈয়দা সুলতানা কে নিযুক্ত করা হলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে শিক্ষকদের বেতনের টাকা উত্তোলন করতে গেলে তিনি বিষয়টি জানতে পারেন।

নুরুজ্জামান মোল্লা এ ব্যাপারে অবগত হয়ে নুরুল আমিন ও তাকে সহায়তাকারী জসীমউদ্দীনের নিকট টাকা ফেরত চেয়ে না পেলে মামলা দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, সাময়িক বহিস্কৃত নুরুল আমিনকে শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক পুনর্বহালের নির্দেশনা দেয়া হলে এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে স্কুলটির ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকরা গত ১১ জুন মানববন্ধন সহ কর্মবিরতি করেন।

Developed By The IT-Zone