ঢাকাSaturday , 26 March 2022

লাখাইয়ে স্বাধীনতা দিবস পালন না করায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের বিক্ষোভ

Link Copied!

লাখাই উপজেলার শিবপুর ২ নং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে স্বাধীনতা দিবস পালন না করার অভিযোগ উঠেছে।

স্কুলটির অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা জানান , তিনি প্রধান শিক্ষক হওয়ার পর থেকে গত কয়েক বছর ধরে কোন জাতীয় দিবসে অনুষ্ঠান করেন না।

শনিবার (২৬ মার্চ) সরেজমিনে স্কুলটিতে গিয়ে দেখা যায় স্বাধীনতা দিবসের কোন অনুষ্ঠান পালন হচ্ছে না।

স্কুলে উপস্থিত হননি প্রধান শিক্ষক। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়ে সেখানে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন।

বিক্ষোভরত শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা জানান পাশের স্কুলটিতে বিভিন্ন জাতীয় দিবসে অনুষ্ঠান আয়োজন করা হলেও তাদের স্কুলটিতে এ ধরনের অনুষ্ঠান হয় না।

ঠিকমতো স্কুলে আসেন না স্কুলের প্রধান শিক্ষক কিবরিয়া। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাসাবাড়ি করে অধিকাংশ সময় সেখানেই অবস্থান করেন।

এ কারণে স্কুলটিতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। ঠিকমতো পড়াশোনা না হওয়ায় স্কুলের অনেক শিক্ষার্থীকেই তাদের বাবা মায়েরা পাশের মাদ্রাসায় ভর্তি করে দিচ্ছেন।

চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ুয়া বাচ্চারা ঠিকমতো নিজের নাম লিখতে জানেন না।

এসময় এলাকার বাসিন্দা হোসাইন শাহ্ জানান, গত ৭ বছর যাবৎ এই স্কুলটিতে কোন প্রকারের খেলাধুলার অনুষ্ঠান হয় না।

স্কুলের অভিভাবক এসকে সাহেদ জানান, তার ছেলে আমির হামজা এ স্কুলে পড়াশোনা করতো। শিক্ষকরা ঠিকমতো ক্লাস না নেয়ায় সে নিজের নাম লিখতে পর্যন্ত শিখতে পারেনি। এজন্য তিনি তার ছেলেকে পাশের মাদ্রাসায় ভর্তি করে দিয়েছেন।

নুরুন্নবী নামের এক অভিভাবক জানান এখানে পড়াশোনা না হওয়ায় তার মেয়ে অরমিতা কে ও মাদ্রাসায় ভর্তি করিয়ে দিয়েছেন।

স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য স্বরাজ মিয়া জানান, প্রয়োজনে তারা চাঁদা তুলে অনুষ্ঠানের খরচ দিতে কিন্তু তারপরও স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান করা উচিত ছিল ।

এসময় এলাকার লোকজনের ক্ষিপ্ত হওয়ার সংবাদ পেয়ে স্কুলের সহকারী শিক্ষক বাপন পাল উপস্থিত হয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।

তিনি জানান, কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী কে ২৬ মার্চ সকালে বাড়ি থেকে নিয়ে আসা হয়েছে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা করানোর জন্য।

এ সময় শিক্ষার্থীরা সমস্বরে বলেন, তাদেরকে এমনি ডেকে নিয়ে আসা হয়েছে কোন চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা কিংবা কোনো অনুষ্ঠান হচ্ছে না।

স্কুলটির অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা সকলে এ অনিয়ম দূর করার দাবি জানান।

এ বিষয়ে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক গোলাম কিবরিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সকালে স্কুলে গিয়ে জাতীয় পতাকা উড়িয়ে এসেছেন বলে দাবী করেন।

এ বছর স্বাধীনতা দিবস পালন না করার বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে তিনি দাবী করেন শিক্ষকরা এ উপলক্ষে মিটিং করেছেন।

তিনি নিজেকে আওয়ামী লীগের লোক দাবি করে বলেন কিছু সংখ্যক বিএনপি’র লোক তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

এ ব্যাপারে লাখাই উপজেলা শিক্ষা অফিসার মজনুর রহমান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এর আগে কেউ এ সংক্রান্ত অভিযোগ করেনি, এজন্য তিনি বিষয়টি জানতেন না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।