ঢাকাসোমবার , ২৮ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাধবপুরের আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষের পাশে গোয়ালঘর : দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ শিক্ষার্থীরা

জালাল উদ্দিন লস্কর, মাধবপুর
মার্চ ২৮, ২০২২ ১:৩৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মাধবপুর উপজেলা সদরে অবস্থিত আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মালি ফিরোজ মিয়ার গোয়াল ঘরের গোবর ও গোমূত্রের দূর্গন্ধে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শ্রেণীকক্ষে ক্লাশ করতে পারছে না।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করে আসছে শিক্ষার্থীরা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মালি ফিরোজ মিয়া সরকারী কোয়ার্টারে বসবাসের পাশাপাশি নিজের উদ্যোগে গোয়ালঘর নির্মান করে বেশ কয়েকটি গরু পালন করে আসছেন।

গোয়াল ঘরের পার্শ্বঘেষা উপজেলা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকটি শ্রেণীকক্ষে নিয়মিত পাঠদান কার্যক্রম চলে। এ অবস্থায় গোবর ও গোমূত্রের দূর্গন্ধে শ্রেণীকক্ষে টেকা দায় বলে ছাত্রছাত্রীরা বারবার প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযোগ দিচ্ছে।

বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে প্রধান শিক্ষক প্রতিবাদ জানালেও ফিরোজ মিয়া তার গোয়ালঘর স্থানান্তর করতে গড়িমসি করছেন। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহীন মিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এএইচএম ইশতিয়াক মামুনের কাছে অভিযোগ করলে তিনি দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন।

ডাঃ মামুন আমার হবিগঞ্জকে জানান,ফিরোজ মিয়াকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলে দেওয়া হয়েছে। ফিরোজ মিয়া জানান,তিনি গোয়ালঘরে এখন থেকে নিয়মিত ব্লিচিং পাউডার ব্যবহার করবেন যাতে দূর্গন্ধ না ছড়ায়! ।

প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহীন মিয়া জানান,স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে জানানোর পরও যদি ফিরোজ মিয়া তার গোয়ালঘর সরিয়ে নিতে টালবাহানা করেন তবে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাথে পরামর্শ করে পরবর্তী করনীয় নির্ধারণ করা হবে।

অভিযোগ করার পর ৩/৪ দিন অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় এবং দূর্গন্ধের কারনে ছাত্রছাত্রীরা শ্রেণীকক্ষে বসতে না পেরে ক্লাশ বর্জন অব্যাহত রয়েছে । সোমবার (২৮মার্চ) প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহীন মিয়া এ প্রতিনিধিকে সাথে নিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এএইচএম ইশতিয়াক মামুনের কাছে অভিযোগ দিলে তিনি আজকের মধ্যেই ফিরোজ মিয়াকে গরু সরিয়ে নিয়ে গোয়াল বন্ধ বা স্থানান্তর করার নির্দেশ দেন।

Developed By The IT-Zone