ঢাকাSunday , 18 February 2024
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিজ্ঞানকে এড়িয়ে শিক্ষাগ্রহণ অপূর্ণাঙ্গ জ্ঞানার্জনের শামিল : ভিসি প্রফেসর ড.মোহাম্মদ জহিরুল শাকিল

Link Copied!

সিলেট মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, “৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তরুণ প্রজন্মকে বিজ্ঞানমনস্ক হতে হবে। বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও তথ্য প্রযুক্তির বিষয়সমূহের উপর শিক্ষাগ্রহন করলেই যে বিজ্ঞান জানতে হবে ব্যাপারটি মোটেই তা নয়। যে কোনো বিষয়ে অধ্যয়নে বিজ্ঞান জানতে হবে। বিজ্ঞানকে এড়িয়ে শিক্ষাগ্রহণ অপূর্ণাঙ্গ জ্ঞানার্জনের শামিল।

সভ্যতা গড়ে ওঠেছে বিজ্ঞানকে কেন্দ্র করে। সভ্যতা টিকেও আছে বিজ্ঞানকে ঘিরে। মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে এই সকালে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ মূলতঃ বিজ্ঞানের প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ।

বিজ্ঞানের প্রতি আমাদের তরুণ প্রজন্মের ভালোবাসা যতো গভীর হবে জাতি হিসেবে বিশ্বের বুকে আমাদের অবস্থান ততো সুসংহত হবে। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) সকাল ৯ টায় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির বটেশ্বরস্থ স্থায়ী ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বাংলাদেশ একাডেমী অব সায়েন্সস আয়োজিত জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড ২০২৪ এর সিলেট বিভাগীয় প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন।

সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ফুয়াদ আহমেদের এর সভাপতিত্বে ও ফাইজা চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজীর এর ডিন প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন টাইটেল স্পন্সর ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক আবু নাসের খান। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে জাতীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করেন যথাক্রমে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ও স্কুল অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজীর এর ডিন প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী।

বিকেলে প্রফেসর এম হাবিবুর রহমান হলে বিজ্ঞান বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন স্কুল অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজীর এর ডিন প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর চৌধুরী মোকাম্মেল ওয়াহিদ। পরে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করা হয়।

৯ম-১০ শ্রেনী ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন যথাক্রমে পুলিশ লাইন হাইস্কুলের আমিনুর রশিদ, জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের মো. তোফাজ্জল আহমেদ সানি ও পুলিশ লাইন হাইস্কুলের ঐশি দাশ। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেনী ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন যথাক্রমে মদন মোহন কলেজের শহিদ হাসান, ইউনিভার্সেল কলেজের যোবায়ের আহমেদ ও সিলেট সরকারি কলেজের আলী মুহাম্মদ ইশরাক ইরাম।

উল্লেখ্য, এবারে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে সিলেট বিভাগের ৩০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৭০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহন করেন। সিলেট বিভাগের বিজয়ীরা ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহন করবেন।