ঢাকাThursday , 30 March 2023
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচঙ্গে অসচেতনতায় ড্রেনেজ ব্যবস্থার বেহাল দশা : জনদুর্ভোগ

Link Copied!

বানিয়াচঙ্গের বিভিন্ন বাজার ও আবাসিক এলাকায় সড়কের পাশের ড্রেনে পলিথিন এবং প্লাস্টিক জাতীয় মোড়কসহ ময়ল-আবর্জনা ফেলে ভরাট করে ফেলা হয়েছে।

কোথাও কোথাও পণ্য উঠানামা করার জন্য রাস্তার পাশে গাড়ি পার্কি করতে করতে পাকা ড্রেন ভেঙে ফেলা হয়েছে। কোনো কোনো স্থানে ড্রেনের মধ্যে টয়লেটের ট্যাংকির পাইপ দিয়ে মানুষের মলমূত্র পড়ার লাইন করে দেয়া হয়েছে।

অনেক এলাকায় খাল ও সড়কের উপর নির্মিত কালভার্ট ভরাট করে ফেলা হয়েছে। মানুষের এহেন অসচেতন কার্যকলাপে সামান্য বৃষ্টিতে দেখা দিচ্ছে জলাবদ্ধতা। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে জনদুর্ভোগ।

বড়বাজার ও গ্যানিংগঞ্জ বাজারের সকল প্রবেশ পথে সামান্য বৃষ্টির পানি আটকে থাকতে দেখা যায়। রোদ উঠলেও আটকে থাকা এসব বাজারের পানি শুকাতে দেরী হয়। ফলে যানবাহনের চাকার মাধ্যমে এসব ময়লা পানি ছিটকে পথচারীদের কাপড়চোপড় নষ্ট হয়।

বাগ মহল্লার দিকে আদর্শ বাজার যাতায়াত করতে গেলে মানুষের মলমূত্রযুক্ত দুর্গন্ধময় পানির ছিটা পড়ে কাপড়চোপড় নষ্ট হয়ে পড়ে। ডাকঘর ও দারুণ কোরআন মাদ্রাসা সড়কের দিকে গেলেও একই অবস্থা।

ওই সড়কে সরকারীভাবে বার বার পাকা ড্রেন নির্মাণ করলেও ধান উঠানামা করার ট্রাকের আঘাতে ড্রেনের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা সম্ভব হয়না।

সাব রেজিস্ট্রার অফিস রোড ড্রেন এবং দোকানপাটের চেয়ে নিচু হওয়ায় এবং দোকানপাটের পলিথিনসহ বিভিন্ন ধরনের আবর্জনা ফেলে রাখায় ওই সড়কের পানি ড্রেনে গিয়ে পড়ার সুযোগ পায়না। ফলে বড়বাজারের ওই সড়কের বেহাল দশা সবসময় লেগেই থাকে।

ওই সড়কের এহেন অবস্থার চিত্র তুলে ধরে কয়েক বছর পূর্বে একটি জাতীয় দৈনিক’ঐতিহ্যের বানিয়াচং ময়লায় ম্লান’ শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলো। কিন্তু অদ্যাবধি ওই সড়কের ড্রেনেজ ব্যবস্থার এমন বেহাল দশা বিদ্যমান রয়েছে।

বড়বাজার থেকে বানিয়াচং সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় হয়ে গ্যানিংগঞ্জ বাজার মুখী সড়কের একটি ব্রিজ কালভার্টের নীচ দীর্ঘদিন ধরে বাঁধ দিয়ে রাখা হয়েছে।

পুরান তোপখানা মহল্লার একটি ব্রিজ কালভার্টের মুখ সরু করে রাখা হয়েছে। নন্দীপাড়া মহল্লার একটি ব্রিজ কালভার্টের নীচে বাঁধ দিয়ে রাখাসহ খাল ভরাট করতে করতে আরেকটি কালভার্টের মুখ সরু করে রাখা হয়েছে।

এভাবে বিভিন্ন পাড়া/মহল্লার খাল ভরাট ও ব্রিজকালভার্ট এবং ছোট কালভার্ট দখল করা অথবা ভরাট করার ফলে গোটা বানিয়াচঙ্গের ড্রেনেজ ব্যবস্থা প্রায় অকার্যকর হয়ে পড়েছে। একারণে সামান্য বৃষ্টিতে বাজারসহ রাস্তাঘাট ও পাড়া/মহল্লায় দেখা দিচ্ছে জলাবদ্ধতা। জনগণকে পোহাতে হচ্ছে জনগণেরই সৃষ্ট দুর্ভোগ।