ঢাকাSaturday , 9 April 2022

বানিয়াচং হাওরে দিনেদুপুরে ডাকাতি : ডাকাত আটক

Link Copied!

বানিয়াচং উপজেলার ৬ নং কাগাপাশা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের বাগাতা হাওরে দুপুর ১১ টায় ভাসমান হাড়ি পাতিল (এলুমিনিয়াম) ব্যবসায়ীকে গামছা দিয়ে মূখ বাধা কয়েকজন ডাকাত পথরোধ করে চাকু দেখিয়ে মারধর করে টাকা পয়সা নিয়ে পালিয়ে গেছে।

ঐসময় ভাসমান ব্যবসায়ীর সৌর চিৎকারে হাওরে থাকা কয়েকজন যুবক আসলেও ডাকাতের হাতে চাকু থাকার কারনে ডাকাতকে ধরতে কেউ সাহস করেননি।

যুবকদের একজন চেয়ারম্যান মোঃ এরশাদ আলীকে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি তাৎক্ষনিক মোটরসাইকেল যোগে আরও কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাওরে থাকা লোকজন সহ ডাকাতকে ঘেরাও করে খায়েশ মিয়া নামক এক ডাকাতকে আটক করেন।

এসময় অন্যরা ধানক্ষেত দিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

আটককৃত ডাকাতকে লোকজনের সহযোগিতায় ইউনিয়ন অফিসে নিয়ে আসেন।  অফিসে এনে চেয়ারম্যান মোঃ এরশাদ আলী জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে আরও একাধিক চুরি ডাকাতির কথা স্বীকার করে, এবং তাকে তল্লাশি করে তার কাছ থেকে একটি চাকু ১০ হাজার ৬৫৪ টাকা রুপার একটা আংটি ও ব্রেসলেট উদ্ধার করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানাযায় ঐ ভাষমান ব্যবসায়ী আজমিরীগঞ্জ উপজেলার শিবপাশা ইউনিয়নের পশ্চিমভাগ গ্রামের , তিনি প্রায় ২০ বছর ধরে কাগাপাশা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ফেরি করে ব্যবসা করে আসছেন।

শনিবার (৯ এপ্রিল) দুপুর ১১ টায় আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ঝিলোয়া গ্রাম থেকে হাওরের রাস্তা দিয়ে কাগাপাশার মাকালকান্দি গ্রামে যাচ্ছিলেন আমিরুল নামে ঐ ব্যবসায়ী।

পথিমধ্যে কয়েকজন মুখোশ পড়া ডাকাত দল তার পথরোধ করে চাকু দেখিয়ে মারধর করে ডাকাতি সংঘটিত করে।

আটক ডাকাত মোঃ খায়েশ আলী (৩৫) বাগাতা গ্রামের মোঃ আনফর উল্লাহর ছেলে।

তার বিরুদ্ধে এর আগেও অনেক চুরি ডাকাতির অভিযোগ রয়েছে । এমনকি গত তিন দিন আগেও আনন্দবাজারের এক স্বর্ণের দোকানের টিনের বেড়া কেটে চুরি করে সে ।

তার কাছ থেকে স্বর্ণের দোকানে চুরি রুপার আংটি ও ব্রেসলাইট উদ্ধার করা হয়।

এরপর চেয়ারম্যান এরশাদ আলী বানিয়াচং থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত)কবির উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে এস আই সবুজের নেতৃত্বে ফোর্স পাঠিয়ে ডাকাত এবং তার কাছে থেকে উদ্ধার করা ১০ হাজার ৬৫৪ টাকা রুপার আংটি ব্রেসলেট ও চাকুসহ থানায় নিয়ে যান।