ঢাকাশুক্রবার , ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২

বানিয়াচংয়ে সরকারি ভুমি থেকে বালু উত্তোলন করায় যুবলীগ নেতাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

রায়হান উদ্দিন সুমন
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২২ ৩:৩৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বানিয়াচং উপজেলা সদরের ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়নের দক্ষিণ যাত্রাপাশা মহল্লায় ১নং সরকারি খাস খতিয়ানের ভুমি থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ আজমল মিয়াকে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫(১) আইনে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ।

শুক্রবার (১৮ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টায় সময় এই অভিযান চালান তিনি। শেখ আজমল মিয়া ওই এলাকার মৃত বজলু মিয়ার পুত্র। আজমল উপজেলা যুবলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা যায়,দক্ষিণ যাত্রাপাশার ভাঙ্গার পাড় হতে মন্দরি যাওয়ার রাস্তার গড়পাড়ের ব্রিজের কাছে সরকারি খাস ভুমি থেকে রাতের আধারে বালু উত্তোলন করে অন্যত্র বিক্রি করার জন্য স্তুপ করছে আজমল মিয়া। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়টি মৌখিকভাবে উপজেলা প্রশাসনকে জানালে এই অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পদ্মাসন সিংহ। ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহায়তা করেন বানিয়াচং থানার একদল পুলিশ ।

বিস্তারিত জানতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে জানান,সরকারের খাস ভুমি থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে এক ব্যক্তি বিষয়টি জানার পরই এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। পরে বালু উত্তোলনকারী শেখ আজমল মিয়াকে বালুু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অবৈধভাবে বালু ও মাটি উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। যে যতো বড়ো প্রভাবশালী ই হোক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

প্রসঙ্গত, অর্থদন্ডপ্রাপ্ত শেখ আজমল মিয়ার বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ করারও অভিযোগ রয়েছে। “সরকারি জায়গায় যুবলীগ নেতার ঘর” এই শিরোনামে জাতীয়সহ বেশ কয়েকটি স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল। সংবাদ প্রকাশের পর সরকারি জায়গা থেকে নির্মাণধীন ঘর ও উচ্ছেদ করে প্রশাসন।

Developed By The IT-Zone