ঢাকাবুধবার , ১৮ মে ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচংয়ে চেয়ারম্যান ধন মিয়াসহ ১০৮ জনের নামে থানায় মামলা : ৮৯ আসামীর জামিন

ইমদাদুল হোসেন খান, বানিয়াচং
মে ১৮, ২০২২ ১০:৫৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বানিয়াচং সদরের সইদ্যাটুলা ছান্দে ২ নং বানিয়াচং উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়ার লোকজন ও ছান্দ সর্দার বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম খানের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সইদ্যাটুলা মহল্লার সর্দার তালেবুর রহমান খান বাদী হয়ে ইউ.পি মেম্বার তকলিছ মিয়াকে প্রধান আসামী করে চেয়ারম্যান ধন মিয়াসহ ১০৮ জনের নামে এবং আরও অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে বানিয়াচং থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১৩, গত সোমবার (১৬ মে) এ মামলা দায়ের করা হয়।

এই মামলায় বুধবার (১৮ মে) ৮৯ জন আসামী নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলেও প্রধান আসামী তকলিছ মেম্বার, ইউ.পি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়াসহ ১৯ জন আসামী আত্মসমর্পণ করেননি।

আত্মসমর্পণকারী আসামীদের পক্ষে তাদের আইনজীবীগন আদালতে জামিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, ছান্দীয় বিষয় নিয়ে বিরোধ ও উত্তেজনার জেরে গত ৫ মে সইদ্যাটুলা ছান্দে দু’পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ শতাধিক লোক আহত হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে দুই পক্ষের ৪/৫শ জনকে আসামী করে পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করেন। এছাড়া ইউ.পি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের ১৬২ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা আরও ১০০/১৫০ জনকে আসামী করে গত ১০ মে বানিয়াচং থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১১।

পরবর্তীতে ছান্দ সর্দার নজরুল ইসলাম খানের পক্ষ থেকে সইদ্যাটুলা মহল্লার সর্দার তালেবুর রহমান খান ওরফে তালহা বাদী হয়ে মেম্বার তখলিছ মিয়াকে প্রধান আসামী ও চেয়ারম্যান ধন মিয়াসহ ১০৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ২০/২৫ জনকে অজ্ঞতনামা আসামী করে গত সোমবার বানিয়াচং থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেন।

সংঘর্ষের পর পুলিশ বিভিন্ন সময়ে ৩৯ জনকে গ্রেফতার করে কোর্টে চালান করেন। এছাড়া সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার খানকে ঢাকা থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে বানিয়াচং থানায় এনে কোর্টে চালান করে।

Developed By The IT-Zone