ঢাকাTuesday , 23 January 2024
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফ্রিডম অব দ্য সিটি অব লন্ডন’ সম্মাননা খেতাব পেলেন জামাল খান

Link Copied!

যুক্তরাজ্যের প্রাচীনতম সম্মাননা খেতাব ‘ফ্রিডম অব দ্য সিটি অব লন্ডন’ পেয়েছেন কমিউনিটির পরিচিত মুখ বাঙালি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সমাজসেবক জামাল আহমেদ খান। লন্ডনের ঐতিহ্যবাহী গিল্ড হলে গত সোমবার (২২ জানুয়ারি) জামাল খাঁনের হাতে আনুষ্ঠানিক ভাবে এই সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়।

স্ব স্ব অবস্থানে থেকে মানুষের সেবায় কাজ করা অনেক মানুকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়েছে বলে জানান ক্লারর্ক অব দ্যা কোর্ট। তিনি জামাল খানকে তার বর্তমান দ্বায়িত্ব সম্পর্কে অবহিত করেন। এ সময় তাঁর পরিবারের শুভাকাঙ্কীরা ও ব্রিটিশ বাঙালি কমিউনিটির অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

সিটি অব লন্ডন করপোরেশন ফ্রিডম অব দ্য সিটি অব লন্ডন খেতাব দিয়ে থাকে। ১২৩৭ সালে শুরু হওয়া এই সম্মাননা ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত শুধু ব্রিটিশ ও কমনওয়েলথ নাগরিকদের জন্য ছিল। ১৯৯৬ সালের পর এটি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ, প্রিন্স ফিলিপ, রানিমাতা কুইন এলিজাবেথ, কিং চার্লস, প্রিন্সেস ডায়না, উইনস্টন চার্চিল, ফুটবলার হ্যারি কেইন, নেলসন ম্যান্ডেলা, স্টিফেন হকিংসসহ অনেক বিখ্যাত ব্যক্তি সিটি অব লন্ডন সম্মাননায় ভূষিত হন।

সম্মাননা পাওয়ার পর জামাল খান বলেন, এই সম্মান কমিউনিটির জন্য উৎসর্গ করলাম। ব্রিটেনের প্রাচীনতম এই সম্মাননা পেয়ে আমি গর্বিত। আমি কমিউনিটি উন্নয়নে যে কাজ করে গিয়েছি সেটা অব্যাহত রাখবো। সম্মাননা প্রদানের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সুলতান মাহমুদ শরীফ, শাহগীর বখত ফারুক, আব্দুল আহাদ চৌধুরী, আহবাব হোসেন, আনসার আহমেদ উল্লাহ, আব্দুল বাছির, সৈয়দ গোলাব আলী, ফয়জুর রহমান ফয়েজ, রোহেল আহমদ, রুমানা রাখি প্রমুখ ।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ বলেন, ‘জামাল খানের এই অর্জন আমাদের জন্য অত্যন্ত সম্মানের। আমরা অবশ্যই গর্বিত। পাশাপাশি বাঙালি হিসেবে এটি সবার জন্য গর্বের। তাঁর অবস্থান থেকে তিনি নিশ্চয়ই বাংলাদেশের সম্মান-মর্যাদা বৃদ্ধিতে কাজ করবেন।’

জামাল খান কমিউনিটির নানা সংগঠনের সাথে যুক্ত থাকার পাশাপাশি যুবলীগের যুক্তরাজ্য ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।