ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৭ জুলাই ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দৈনিক আমার হবিগঞ্জে সংবাদ প্রকাশের পর : খাদ্য নিয়ন্ত্রককে বদলির আদেশ

দিলোয়ার হোসেন,আজমিরীগঞ্জ
জুলাই ৭, ২০২২ ৬:০৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদামে টনপ্রতি ৫শ টাকা উৎকোচ গ্রহন করে নিম্নমানের ধান সংগ্রহ করছেন মর্মে দৈনিক আমার হবিগঞ্জে সংবাদ প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নির্দেশে জেলা কারিগরি খাদ্য নিয়ন্ত্রক আব্দুস সামাদ আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদাম পরিদর্শনে আসেন।

পরিদর্শনে খাদ্য গুদামে ধান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ও খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা বকুল কুমার বৈদ্যের পক্ষে সাজানো তদন্ত করার পর সাধারন কৃষকদের অভিযোগে জেলা কারিগরি খাদ্য নিয়ন্ত্রক আব্দুস সামাদের বিরুদ্ধে আর একটি সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পরপরই এক রকম তড়িঘড়ি করে আব্দুস সামাদকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বদলী করায় সাধারন কৃষকদের মাঝে সন্তুষ্টি দেখা যায়।

আজমিরীগঞ্জ কয়েকজন প্রান্তিক কৃষকের সাথে আলাপ করলে তারা আব্দুস সামাদের বদলীতে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং সাথে সাথে আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবী জানান ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আরোও একজন কৃষক জানান,শুধুমাত্র এই বছর না। প্রতি বছরই ধান সংগ্রহের শুরু থেকে ওসিএলএসডি,ধান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট নিজেদের মধ্যে যোগসাজশে প্রতি টনে নির্ধারিত ফি নির্ধারন করে। আমরা অনেকবার প্রশ্ন করেছি সরকারকে ধান দেব নায্যমূল্য নেব।

অতিরিক্ত ফি কিসের,তখন ওসিএলএসডি আমাদের জানান,উর্ধতন কতৃপক্ষ,মিডিয়া ও এলাকার মাথা নেতা-ফেতাদের টাকা দিতে হয়,টাকা কি আমার পকেট থেকে দিব। এই অজুহাতে প্রতি বছরই আমরা অতিরিক্ত ফি দিয়ে থাকি।

একই সাথে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের বক্তব্য নিয়েও চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তিনি গতকাল বুধবার (৭জুলাই) জানান,গুদামে ধান সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। যার নাই কোন লিখিত আদেশ জানেন না বেশিরভাগ প্রান্তিক কৃষক,যার ফায়দা নিতেছে স্হানীয় অসাধু ধান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট।

আবার সরকার থেকে দেওয়া ধান ওজন করার মেশিনটি দীর্ঘদিন নষ্ট থাকার পরও এটি সংস্কার না করে আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা ডিজিটাল মেশিন দিয়ে প্রতিমন ৪২ কেজির উপরে ধরে ধান সংগ্রহ করা নিয়েও চলছে অনিয়মের গুঞ্জন ।

একজন খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও তার স্বপদে বহাল থাকা নিয়ে চলচে আলোচনা-সমালোচনা।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি নিরপেক্ষ তদন্ত করে তাহলে অসাধু ধান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ও খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা বকুল কুমার বৈদ্যের তলের বিড়াল বেড়িয়ে আসবে বলে সাধারন কৃষকেরা মনে করেন।

জেলা কারিগরি খাদ্য নিয়ন্ত্রক আব্দুস সামাদের বদলীর তথ্য নিশ্চিত হতে এবং আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদামে অসাধু ধান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ও খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা বকুল কুমার বৈদ্যের অনিয়মের কোন নিরপেক্ষ তদন্ত হবে কি না জানতে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক চাই থোয়াই প্রু মার্মার সাথে মুটোফোনে কথা বললে তিনি আব্দুস সামাদের বদলীর ব্যপারটা নিশ্চিত করেন এবং বলেন আজমিরীগঞ্জ খাদ্য গুদামের অনিয়মর ব্যাপারে তদন্ত টিম ঘটন করা হয়েছে। আসন্ন ঈদুল আযহার পর তদন্ত টিম আজমিরীগঞ্জে তালিকাভুক্ত কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অনিয়মের নিরপেক্ষ তদন্ত করবে বলেও জানান তিনি ।

Developed By The IT-Zone