ঢাকাশনিবার , ১ জানুয়ারি ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দীর্ঘদিন রাস্তাঘাটের উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত সাতাউক গ্রামবাসী

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
জানুয়ারি ১, ২০২২ ৩:৪২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এম এ ওয়াহেদ লাখাই থেকেঃ   লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড সাতাউক গ্রামবাসী দীর্ঘ ৫০ বছর যাবত রাস্তা ঘাট উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সাতাউক গ্রাম ৮ নং ওয়ার্ড টি লাখাই উপজেলার নিম্নাঞ্চল  অবহেলিত একটি গ্রাম।

 

বর্ষাকালে গ্রামের প্রতিটা রাস্তা পানির নিচে নিমজ্জিত থাকে ফলে গ্রামবাসী নানা ভোগান্তিতে ভোগতে হয়। সাতাউক গ্রামবাসী লাখাই উপজেলা সদর কালাউক আসতে তাদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ছবি : লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক ইউনিয়নের সাতাইল গ্রামের রাস্তাঘাট দীর্ঘদিন ধরে উন্নয়ন বঞ্জিত

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গ্রামটিতে জনসংখ্যা প্রায় ৭ হাজার এবং ভোটার সংখ্যা ২৬শত ২০জন। ঔ গ্রামের গ্রীস ও ফ্রান্সে বসবাসরত ২শত ৫০জন। এ ব্যাপারে এক প্রবাসীর পিতা বজলুর রহমান জানান প্রতি বছর আমাদের গ্রামের প্রবাসীরা লক্ষ লক্ষ টাকা রেমিটেন্সের মাধ্যমে এ দেশে আসছে অথচ আমাদের এই গ্রামটিই রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত।

 

একই গ্রামের লুৎফুর রহমান জানান জনপ্রতিনিধিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করি কিন্তু আমাদের গ্রামের উন্নয়নের জন্য তারা উদাসীন। তিনি আরো জানান,কয়েকটি ব্রীজ করলেও রাস্তার কোন কাজ হয়নি।

 

৮নং ওয়ার্ড মেম্বার জালালের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এই প্রতিনিধিকে জানান, আমি বহু চেষ্টার পর উপজেলা পরিষদের ফান্ড থেকে ১ কিঃ মিঃ রাস্তা ইট সলিং রাস্তা করেছি ২ বছর আগে কিন্তু কাজ নিম্ন মানের হওয়ায় মন্নান মিয়ার বাড়ী হতে মাদ্রাসা পর্যন্ত বিভিন্ন স্হানে খানা খন্দ ও গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

 

কিন্তু ৫ বছরের ভিতরে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কর্মসৃজন কর্মসুচির আওতায় কিছু রাস্তার কাজ করতে পেরেছি। নব নির্বাচিত মেম্বার সাহেব মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, জনগন আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছে আমি আমার চেষ্টার ত্রুোটি করব না আমার ওয়ার্ডের উন্নয়নের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাব।

 

 

নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান নোমান মিয়ার সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি জনগনের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি আমার কাছে প্রতিটা ওয়ার্ডই আমার কাছে সমান। তাই আমি খুঁজে খুঁজে প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের উন্নয়ন করব।

 

তিনি আরো জানান আমি চেয়ারম্যান পুত্র চেয়ারম্যান আমার পিতা মরহুম আব্দুস সহিদ ২ বার এই ইউনিয়নের দায়িত্ব পালন করেছেন। আমি আমার পিতার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজ পূরণ করব।

Developed By The IT-Zone