ঢাকাবুধবার , ৮ ডিসেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুনারুঘাটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
ডিসেম্বর ৮, ২০২১ ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

তারেক হাবিব  :  চুনারুঘাটে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় শাহিন মিয়া (৩১) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদন্ড দেওয়া হয়। মঙ্গলবার (৭ডিসেম্বর) দুপুরে হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক টি এম মুসা এ রায় দেন। শাহিন মিয়া চুনারুঘাট উপজেলার জিকুয়া গ্রামের ইয়ার হোসেনের পুত্র।

 

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের দিকে প্রতিবেশী স্কুল ছাত্রীর উপর কূ-নজর পড়ে ইয়ার হোসেনের পুত্র বখাটে শাহিন মিয়ার। স্কুলে আসা যাওয়ার প্রায়ই উত্যক্ত করত তাকে। বিষয়টি বখাটে শাহিন মিয়ার পরিবারের লোকজনকে জানালে সে আরও বেপরোয়া হয়ে উঠে। ওই বছরের ১ জুলাই মধ্যরাতে স্কুলছাত্রীর ঘরের টিন কেটে ভেতরে প্রবেশ করে গামছা দিয়ে মুখ বেধে পালাক্রমে ধর্ষন করে শাহিন। পরে তার শোর চিৎকারে বাবা-ভাই ছুটে এসে শাহিনকে আটক করে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বিষয়টি শাহিনের অভিভাবকদের জানালে বিয়ের আশ্বাসে কৌশলে পালিয়ে যায় শাহিন। এদিকে দিন পার হয়ে মাস, এক সময় অন্তঃসত্তা হয়ে পড়ে স্কুলছাত্রী। উভয়পক্ষ সমঝোতাতে না আসায় ওই স্কুলছাত্রী বাদী হয়ে ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন।

 

আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে এফআইআর মর্মে মামলা গ্রহনের নির্দেশ দেন চুনারুঘাট থানা পুলিশকে। দীর্ঘ তদন্ত শেষে চুনারুঘাট থানার তৎকালীন পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ওই বছরের ১ ডিসেম্বর শাহিন মিয়াকে প্রধান আসামী করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

 

এদিকে মামলা চলাকালীন সময়ে এক কন্যা সন্তান জন্ম দিয়ে মৃত্যুবরণ করেন ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী। ধর্ষিতার প্রসব করা কন্যা সন্তান মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জানা গেছে। এর আগে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ধর্ষিতা ছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা গ্রহন করা হয়। মঙ্গলবার রায় ঘোষনার সময় অভিযুক্ত শাহিন উপস্থিত ছিলেন।

 

রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি আবুল হাসেম মোল্লা মাসুম। আসামী পক্ষের আইনজীবি ছিলেন চৌধুরী আশরাফুল বারী নোমান। রায় ঘোষণার পর আসামী শাহিন মিয়াকে হবিগঞ্জ কারাগারে প্রেরণ করা হয় বলে জানা গেছে।

 

নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি আবুল হাসেম মোল্লা মাসুম জানান, ১২ বছরের শিশু স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত শাহীন মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। রায় শেষে শাহিন মিয়াকে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

Developed By The IT-Zone