ঢাকাশুক্রবার , ১৩ মে ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চাকুরির সন্ধানে হবিগঞ্জে এসে গণধর্ষনের শিকার ময়মনসিংহের তরুণী

তারেক হাবিব
মে ১৩, ২০২২ ৯:৪৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চাকরির সন্ধানে হবিগঞ্জে এসে কথিত প্রেমিক ও তার দুই সহযোগীর হাতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ময়মনসিংহের ধারাকান্দা উপজেলার এক তরুণী (১৯)। এদিকে, একদিন রুমে ও পরে শাহজীবাজার রাবার বাগানে গণষর্ণের পর গা ঢাকা দিয়েছে কথিত প্রেমিক সাগর মিয়া ও তার দুই সহযোগী।

পরে ওই তরুণীকে মমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানায় একটি গণর্ধষণনের মামলা দায়ের করেছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ধর্ষিতা তরুণী দৈনিক আমার হবিগঞ্জ’কে জানান, গত ৯ মাস আগে মোবাইল ফোনের রং নাম্বারের মাধ্যমে পরিচয় হয় শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অলিপুর এলাকার মুদিমালের দোকানদার সাগর মিয়া (২৫) এর সাথে। ফোনের পরিচয়ের সুত্র ধরে দুজনের মধ্যে গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। সময়ে-অসময়ে বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে এদের মধ্যে চলত আলাপন।

সম্প্রতি একটি বায়িং হাউজ থেকে চাকরি চলে গেলে বেকার হয়ে যায় সে। কর্মহীন হয়ে সংসারে সৎ মায়ের নীপিড়নের বিষয়টি প্রেমিক সাগর মিয়াকে জানালে সাগর মিয়া ওই তরুণীকে স্থানীয় বাদশা কোম্পানীতে উচ্চ বেতনে চাকুরীর প্রলোভন দিয়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের অলিপুর এলাকায় নিয়ে আসে।

অলিপুর এলাকার একটি রুমে আটকে রেখে এবং পরে শাহজী বাজার রাবার বাগানে তার দুই সহযোগী দীপন ও শারজানকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এক পর্যায়ে সে অসুস্থ হয়ে চিৎকার দিলে পড়েলে বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে আসে। ধর্ষিতার অভিযোগ, প্রেমিক সাগর মিয়া ও তার দুই বন্ধু দীপন এবং শারজান তাকে ধর্ষণ করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চুনারুঘাট থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম মোস্তফা জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

তবে এ ঘটনায় কাউকে এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি (এ নিউজ লেখা পর্যন্ত)। গ্রেফতার অভিযান চলমান রয়েছে। তবে ধর্ষিতার কোন অভিভাবক বা মোবাইল ফোন না থাকায় চরম বিড়ম্বনায় পড়েছে পুলিশ।

Developed By The IT-Zone