ঢাকামঙ্গলবার , ১২ এপ্রিল ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কোনো কাজে আসছে না অপরিকল্পিতভাবে নির্মিত কালভার্টটি

জালাল উদ্দিন লস্কর,মাধবপুর
এপ্রিল ১২, ২০২২ ৫:৩৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

অপরিকল্পিতভাবে নির্মান করায় জনসাধারণের কোনো উপকারেই আসছে না মাধবপুর উপজেলার ছাতিয়াইন পূর্ব গ্রামের এই কালভার্টটি।সরেজমিনে গিয়ে এবং সংস্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা যায় ২০২০-২১ অর্থবছরে এলজিএসপি-৩(বিবিজি) প্রকল্পের মাধ্যমে ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ছাতিয়াইন পুর্বগ্রামের দক্ষিন প্রান্তের নিলাম্বর দাসের বাড়ির কাছে এ কালভার্টটি নির্মান করা হয়।

উইং ওয়াল কিংবা দুই প্রান্তে মাটি ভরাট না করায় মূলত এটি জনসাধারণের কোনো কাজে আসছে না। কালভার্টটির পাশের বাড়ির মাছ ব্যবসায়ী হেমেন্দ্র দাস জানান, এ কালভার্টের দুইদিকে মাটি ভরাট করে চলাচলের উপযোগী করা হলে আশপাশের ২৫/৩০ টি পরিবার স্বাচ্ছন্দ্যে চলাফেরা করার সুযোগ পেতো।

এভাবে অপরিকল্পিত একটি কালভার্ট নির্মানকে তিনি সরকারী অর্থের অপচয় বলে মনে করছেন।স্কুল ছাত্র ঝন্টু সরকার হাসতে হাসতে বলে, কী একখান ‘জিনিষ’ বানাইছে রে ভাই! না যায় উঠন,না যায় নামন।অথচ উইং ওয়াল দিয়ে দুইদিকে মাটি ভরাট করা হলে কালভার্টটি ব্যবহারের উপযোগী হয়ে উঠতো। তখন ২৫/৩০ টি পরিবার এই কালভার্টের মাধ্যমে চলাচলের সুবিধা পেতো ।

তারা জানান,শুকনো মৌসুমে যেনতেনভাবে চলাচল করা গেলেও বর্ষায় খালে পানি জমে যায় তখন তাদের চলাচলে দূর্ভোগ বেড়ে যায়। অচিরেই এই কালভার্টটি সংস্কার করে ব্যবহার উপযোগী করার দাবি তাদের।

ছাতিয়াইন ইউনিয়ন পরিষদের সচিব জগদীশ দাস আমার হবিগঞ্জকে জানান, এলজিএসপির কাজে মাটি কাটার জন্য বরাদ্ধ থাকে না বলে মাটি কাটা যায়নি।

পরবর্তিতে কর্মসৃজন প্রকল্প বা এই জাতীয় প্রকল্প থেকে বরাদ্ধ প্রাপ্তি সাপেক্ষে কালভার্টির দুইদিকে মাটি কেটে সংস্কার করে চলাচলের উপযোগী করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। ছাতিয়াইন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিন চৌধুরী জানান,এই কালভার্টটি যাতে জনসাধারণের কাজে আসে সে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Developed By The IT-Zone