ঢাকাWednesday , 21 September 2022

আবু জাহির এমপির মাদক সিন্ডিকেটের মূল হোতা সুজন মদসহ গ্রেফতার

Link Copied!

আবু জাহির এমপির মাদক সিন্ডিকেটের মূল হোতা সুজন কুমার ভট্টাচার্য ৩০ বোতল ভারতীয় মদ ভদকা সহ গ্রেফতার হয়েছেন। এ সময় সুজনের আরেক সহযোগী দুর্জয় দাশকেও গ্রেফতার করে চুনারুঘাট থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানা পুলিশের এসআই তরিকুল ইসলাম হিমুন বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে চুনারুঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। সুজন ভট্টাচার্য্য হবিগঞ্জ পৌরসভার চিরাকান্দির বাসিন্দা বিরাজ ভট্টাচার্যের পুত্র এবং একই এলাকার বাসিন্দা দুর্জয় দাশ সাগর মৃত রঞ্জন দাসের পুত্র।

জানা যায়, সুজন ও দুর্জয় সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) চুনারুঘাট উপজেলার আসামপাড়ার টেকেরঘাট গ্রামের সিকি মিয়ার পুত্র নুর ইসলামের নিকট থেকে ৩০ বোতল ভারতীয় ভদকা ক্রয় করেন।

ছবি : মদসহ আটক সুজন ভট্রাচার্য্য

তারা রাত ৮ টা ১৫ মিনিটের দিকে গাজীপুর ইউনিয়নের জারুলিয়ার গজারিয়া গ্রামের এডভোকেট খয়ের এর বাড়ির সামনের রাস্তায় দাড়ান গাড়িতে উঠে হবিগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাওয়ার জন্য।

এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই তরিকুল ইসলাম হিমুনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাদেরকে ভদকা সহ হাতেনাতে গ্রেফতার করেন। চুনারুঘাট থানার ওসি ও এস আই হিমুন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সুজন আবু জাহির এমপির মাদক সিন্ডিকেটের হয়ে কাজ করেন বলে একাধিক নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যক্তি দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন। সুজন তার সহযোগীদের নিয়ে নিয়মিত ভারতীয় মদ চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসেন।

ছবি : বিএনপি নেতা জিকে গউছের সাথে সুজন

আগে ছাত্রদল করলেও আবু জাহির এমপি ও তার ভাতিজা হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইজুর রহমান রবিনের হাত ধরে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে প্রবেশ করেন তিনি।

পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা হওয়ার পর দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় সুজনের ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলেও তখন বিষয়ে কেউ কর্ণপাত করেননি।

হবিগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক পদে আসীন হয়ে এমপি আবু জাহিরের মদদে হবিগঞ্জ শহরে মাদক সিন্ডিকেট গড়ে তুলেন সুজন। এ অবৈধ মাদক বানিজ্যের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয় এই মাদক সিন্ডিকেট।

দৃশ্যমান কোন আয় রোজগারের উৎস না থাকলেও সিন্ডিকেটের হোতা সুজন ও অন্যরা বিলাসবহুল জীবন যাপন করে আসছিলেন। মানবিক বাংলাদেশ হবিগঞ্জ জেলা শাখা ও বাংলাদেশ ব্রাম্মন যুব-কিশোর সংসদের সভাপতির পদ ও ভাগিয়ে নেন সুজন।

যদিও মানবিক বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জানান, হবিগঞ্জ জেলা কমিটি মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় মাস ছয়েক আগে বিলুপ্ত করা হয়। তবে সুজন তার ফেসবুক প্রোফাইলে এখনো সভাপতির পদে থাকার তথ্য প্রদর্শন করে আসছিলেন।

এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর গত রাতে হবিগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সুজনকে বহিষ্কার করে হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ ফেসবুকে একটি ঘোষণাপত্র প্রচার করেন।

এদিকে আবু জাহির এমপির ছত্রছায়ায় মাদক সিন্ডিকেটের হতা সুজনের গ্রেফতারের খবর প্রচার হওয়ায় চারদিকে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।