ঢাকামঙ্গলবার , ৮ নভেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আজমিরীগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের ত্রাণ বিতরণে নয়-ছয়

তারেক হাবিব
নভেম্বর ৮, ২০২২ ৮:৫১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আজমিরীগঞ্জের শিবপাশা ইউনিয়নে ত্রাণ বন্টনে চরম অব্যবস্থাপনা ও অনিয়ম করা হয়েছে। নানা নাটকীয়তার ৬ মাস পর প্রধানমন্ত্রীর বন্যাকালীন ত্রান বিতরণ করেও এর মধ্যেই করেছেন অনিয়ম।

বন্যাকালীন সময়ে ক্ষতিগ্রস্থদের অনেকেই পাননি ত্রাণ সহায়তা। ত্রাণের জন্য রাস্তায় মিছিল করতেও দেখা গেছে। ত্রান দেয়ার নামে চেয়ারম্যান ফটোসেসন করছে বলেও অনেকে অভিযোগ করেন।

১/২’শ পরিবারের মাঝে ত্রাণের ব্যাগ ধরিয়ে দিয়ে ৮’শ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণের বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছে বলে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ’কে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

আবার মুখ দেখে স্বজন প্রীতি করার অভিযোগও রয়েছে অনেক জায়গায়। এর জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দায়ী করছেন ভুক্তভোগীরা কারন কোন পরকল্পিত ও যথা সময়ে ত্রান বিতরনের ব্যবস্থা করা হয়নি। শিয়ালের হাতে মুরগী ভাগি দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বলে অনেকভুক্তভোগী মন্তব্য করেন।

এদিকে, বন্যাকালীন সংকটে বেকার ও পানিবন্দী মানুষের জীবন হঠে দুর্বিষহ। ঘরে ঘরে চাপা হাহাকার। মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষের ঘরে খাবার সংকট।

এদিকে দৈনিক আমার হবিগঞ্জের হাতে আসা কিছু তথ্য প্রমাণ পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার শিবপাশা ইউনিয়নে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় মানুষের জন্য জনপ্রতি ১০ কেজি চাল ও ৫০ টাকা হারে মোট ৮ মেট্টিক টন ত্রাণ বরাদ্দ দেন উপজেলা প্রশাসন।

এ ঘটনায় ৩০ জুন স্থানীয় সরকারী খাদ্যগুদাম থেকে বরাদ্দকৃত ত্রাণ তিনি রিসিভ করেন। পরে ক্রমিক-১ এ রোশেনা আক্তার এবং ৮০০ নং এ কেন্টু মিয়াকে অন্তভুক্ত করে ৮’শ জনের টিপসই জালিয়াতির মাধ্যমে একটি মাস্টাররোল ভাউছার তৈরি করে তা স্থানীয় ইউএনও বরাবরে প্রেরণ করেন।

এদিকে, জালিয়াতির বিষয়টি দৈনিক আমার হবিগঞ্জের দৃষ্টিগোচর হলে গত ৩১ অক্টোবর সংবাদ প্রকাশ করে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ। পরে চাপের মূখে গত ৬ নভেম্বর ওই আত্মসাতকৃত ত্রাণসামগ্রী ইউএনও এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে বন্টন করতে বাদ্য হন নলিউর।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান নলিউর রহমান তালুকদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি দৈনিক আমার হবিগঞ্জ’কে বলেন, আমি যা করেছি ইউএনও এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের পরামর্শেই করেছি, মাস্টাররোল ও অন্যান্য কাগজে সচিব আমাকে না জানিয়ে স্বাক্ষর নিয়েছে এর দ্বায় তার।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা সালেহা সুমী জানান, গত সমন্বয় সভায় বন্যাকালীন সময়ের ত্রাণসামগ্রী দ্রুত বিতরণের নির্দেশ দেয়া হয়। এরপরই গত রবিবার (৬নভেম্বর) বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

Developed By The IT-Zone