ঢাকাবুধবার , ১৩ এপ্রিল ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হবিগঞ্জে ৮০ বস্তা সরকারী চাল উদ্ধার : আটক ১

এম এ রাজা
এপ্রিল ১৩, ২০২২ ৫:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বানিয়াচং উপজেলার ১২ সুজাতপুর ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চালের ডিলার শাহিন মিয়া (৬০) রাতের আধারে বস্তা বদল করে সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৮০ বস্তা চাল পাচার করার সময় চাল বুঝাইকৃত ট্রলি চালকসহ আটক করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) দুপুর ১ টার সময় হবিগঞ্জ শহরে আলম বাজারে বানিয়াচং উপজেলা এসি ল্যান্ড ইফফাত আরা জামান উর্মি পুলিশদের সাথে নিয়ে ৮০ বস্তা চাল বুঝাই ট্রলিসহ চালককে আটক করেন। ওই সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গাড়িতে থাকা চাল চুরিতে সহযোগী চৌকিদার বেলু মিয়া পালিয়ে যায় ।

আটককৃত ট্রলি চালক সুজাতপুর ইউনিয়নের ইকরাম গ্রামের বাসিন্দা সিরাজ মিয়ার ছেলে মোঃ মজিবুল (২৫) । এ বিষয়ে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি ডিলার শাহিন মিয়ার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এই চাল তার না কোথা থেকে আসছে তাও তিনি জানেন না।

জানা যায়, বানিয়াচং উপজেলার ১২ নং সুজাতপুর ইউনিয়নের ইকরাম গ্রামের বাসিন্দা আদিল মিয়ার ছেলে শাহিন মিয়া প্রধানমন্ত্রীর খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি ১০ টাকা কেজির চাল এর ডিলার নিয়ে তা সাধারণ মানুষের কাছে বিক্রয় না করে অধিক মুনাফার আশায় খোলা বাজারে বিক্রয় করে দেয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ১১ এপ্রিল গভীর রাতে ৫০ কেজি ওজনের ৮০ বস্তা সরকারি চাল,সরকারি বস্তা পরিবর্তন করে বাজারে পাওয়া যায় এমন বস্তায় ভরে পরের দিন সকালে চৌকিদার বেলু মিয়াকে দিয়ে ট্রলি করে হবিগঞ্জ শহরে পাঠায় বিক্রয় করার জন্য। ওই সময় শহরের আলম বাজারে পূর্ব থেকে খবর পেয়ে অপেক্ষমান এসিলেন্ট ইফফাত আরা জামান উর্মি ও পুলিশ সদস্যরা তাদের আটক করে ।

খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আটক দেখে জড়ো হয় হাজারো মানুষ । উপস্থিত এসিলেন্ট পুলিশ ও উৎসুক জনতার সামনে ওই ইউনিয়নের যাতায়াতকারী অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, প্রকৃতপক্ষে যারা খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি চাল পাওয়ার যোগ্য তাদেরকে চাল দেয় না শাহিন।তার আত্মীয়র মধ্যে দু’চারজনকে স্বজনপ্রীতি করে সরকারি চাল দিয়ে বাকি সব চাল অধিক মুনাফার জন্য কালো বাজারে বিক্রি করে দেয়। অথচ ওই এলাকার ভাটি অঞ্চলের হাজারো মানুষ খাবার সংকটে ভুগছেন।

এ বিষয়ে বানিয়াচং উপজেলার এসি ল্যান্ড ইফফাত আরা জামান উর্মি বলেন, আমরা সরকারি চাল গাড়ি ও ড্রাইভারকে আটক করে নিয়ে যাচ্ছি পরে বানিয়াচং উপজেলা ফুড অফিসার বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবেন।

Developed By The IT-Zone