ঢাকাবুধবার , ২৯ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হবিগঞ্জে শতবর্ষী হালিম চাঁনের মানবেতর জীবন

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
এপ্রিল ২৯, ২০২০ ৬:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মোঃ খায়রুল ইসলাম সাব্বির : জীবনের তাগিদে নানা রখম ভাবে জীবন যাপন করছে অনেকই। কেউ রাজ প্রাসাধে আবার কেউবা রাস্তায় জীবন কখনো কারো জন্য থেমে থাকেনা। অনেকের ছেলে মেয়ে থেকেও শেষ বয়সে এসে ও কষ্ট করতে হয়। আর যার ছেলে মেয়ে কিছু ই নেই তার কষ্টের তো কোন সীমা ই নেই। তেমনি একজন মহিলা হালিম চাঁন এলাকার লোক জন যাকে আকল এর মা নামে চিনে। ১২৫ বছর ধরে এখন ও জীবন এর সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন।  তিনি ধুলিয়াখাল এর ৫ নং গোপায়া ইউনিয়ন এর বাসিন্দা ।এক ছেলে ই ছিল তার। গত তিন বছর আগে মারা যায় সে। মারা যাওয়ার সময় বউ এবং এক প্রতিবন্ধী ছেলে রেখে যায় তার কাছে।

ছবি : শতবর্ষী হালিম চাঁন বিবি ! কোনো সহায়তা না পেয়ে আজও মানবেতর জীবন পার করছেন

কী নির্মম জীবন যাপন করছে হালিম চান। সারাদিন রৌদ্রের মধ্যে বসে থেকে মানুষ এর কাছে হাত পেতে যা সাহায্য পান তিনি। তার ছেলের বউ নাতি কে নিয়ে কোন রকম খেয়ে জীবন যাপন করছে তারা। কেউ খোঁজ খবর নিচ্ছে না তাদের। কোন ধরনের সরকারী সাহায্য ও পায়নি হালিম চাঁন। বয়স্ক বাতা থাকলে ও ছয় মাস পর পর ১৫০০ টাকা পান তিনি তাছাড়া আর কোন ধরনের সাহায্য পায়নি তিনি, হালিম চান দৈনিক আমার হবিগঞ্জ কে জানান, দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে অভাব এর করনে রাস্তায় বসে ভিক্ষা করছি কোন রকম খেয়ে জীবন যাপন করছি আমি টাকা অভাবে চিকিৎসা করাতে পারিনা।

 

সরকার এর কাছে আমার আকুল আবেদন যাতে আমার জন্য একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয় যাতে শেষ বয়সে একটু শান্তিতে মরতে পারি। এলাকয় বিত্তবান ব্যাক্তি থাকলে ও সাহায্যে হাত বাড়িয়ে দেওয়ার মতো নেই কেউ।

 

হালিম চাঁন এর বিষয় নিয়ে ইউএনও মোঃ শাখাওয়াত হোসেন রুবেল দৈনিক আমার হবিগঞ্জ কে জানান, অতি শিগগিরই তার কাছে খাবার পৌছে দিব। খাবার নিয়ে তাকে কোন টেনশন করতে হবে না।

Developed By The IT-Zone