ঢাকাশুক্রবার , ৩ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সংবাদ গ্রহণে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা কতটুকু?

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
এপ্রিল ৩, ২০২০ ৬:৫৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জাবেদুর রহমান, নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ একটা দেশ উন্নয়ের জন্য সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা যেমনিভাবে প্রয়োজন, তেমনিভাবে একটা দেশের খারাপ অবস্থায় জনগণের যা যা দরকার, সরকারের কাছে তা উপস্থাপন করার জন্য সাংবাদিকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা প্রয়োজন বটে। সরকার সুন্দরভাবে দেশ পরিচালনা করবে, দেশের মানুষের খারাপ পরিস্থিতিতে তাদের জন্য ত্রাণের ব্যবস্থা করবে। পাশাপাশি দেশের মানুষ ত্রাণ পাচ্ছে কি-না সে ব্যাপারে সাংবাদিকরা যাচাই বাছাই করবে এবং কোন অনিয়ম দেখলে তা জনগণ ও সরকারের কাছে স্পষ্টভাবে উপস্থাপন করবে যাতে সাধারণ মানুষ তাঁর প্রাপ্য ত্রাণ থেকে বঞ্চিত না হয়।

কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে, আজকাল সাংবাদিকরা সত্যের পক্ষে এবং অন্যায় তথা অনিয়মের বিরুদ্ধে কোন নিউজ খবরের কাগজে তুলে ধরলে, প্রথমে তাদেরকে চিঠিপত্র অথবা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে হুমকি দেওয়া হয়। তারপর সন্ত্রাসী দিয়ে তাদের উপর আক্রমণ চালানো হয়। তেমনিভাবে, এপ্রিল মাসের ১ তারিখ রোজ বুধবার হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ৫নং আউশকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন ১০ কেজি চাউল দেওয়ার বিপরীতে ৫ কেজি চাল বণ্টন করায়; সাংবাদিক শাহ সুলতান আহমেদ উক্ত চেয়ারম্যানের দুর্নীতির চিত্র ফেইসবুক লাইভে তুলে ধরেন।

কিন্তু এই চিত্র লাইভে তুলে ধরার পর চেয়ারম্যান ও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে শাহ সুলতান আহমেদ এর উপর আক্রমণ চালানো হয়। এই আক্রমণ থেকে শাহ সুলতান আহমেদ-কে রক্ষা করার জন্য সাংবাদিক মুজিবুর রহমান এবং বুলবুল আহমেদ আহত হন। শুধু এটা নয়, ভোলায় গরিবের নামে বরাদ্দকৃত চাল রাতের আঁধারে চুরি করে নেওয়ায়; ওই চালের ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সাংবাদিক সাগর চৌধুরী জানালে এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে ভোলার বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিক সাগর চৌধুরীকে মোবাইল চোর ও ছিনতায়ের অপবাদ দিয়ে মারধর করেছে বোরহানউদ্দিন উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান জসীম উদ্দিনের ছেলে নাবিল। তারপর কুড়িগ্রামে ডিসির অনিয়মের বিরুদ্ধে নিউজ করায় সাংবাদিক আরিফ-কে বাড়ি থেকে ১৫ জন আনসার সদস্য দিয়ে ধরে নিয়ে আসেন ডিসি সুলতানা পারভিন। এই হল আমাদের বর্তমান অবস্থা।

আমরা জানি, একটি দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতার সাথে সাংবাদিকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণভাবে পালন করে থাকে। কেননা, সাংবাদিকদের ভয়ে এলাকার নেতারা টেন্ডার মারতে পারে না, রাস্তার কাজে অনিয়ম করতে পারে না, অসহায় মানুষদের চাল,গম, ভাতা মেরে খেতে পারে না। কিন্ত সাংবাদিকরা আজ নির্যাতিত, সত্য কথা বলতে ভয় পায়, নিউজ করতে কলম কেঁপে উঠে। শুধু তাই না, হুমকির কারণে সত্য খবর পত্রিকায় তুলে ধরতে না পাড়ায়; মাঝেমধ্যে সাধারণ মানুষের কাছে সাংবাদিকদের ধান্দাবাজ, ধোঁকাবাজ অথবা চোর, বাটপার নামক শব্দ শুনতে হয়। কিন্ত আজ তারা কি করবে? তাদের কাছে তো কোন অস্ত্র নেই, শুধু আছে শহিদের রক্তের চাইতে যেটা পবিত্র বস্তু একমাত্র কলম।

পরিশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে বলতে চাই, যদি আপনি দেশের উন্নয়ন শতভাগ নিশ্চিত করতে চান, তাহলে সাংবাদিকদের শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। তা নাহলে দেশের জন্য কাজ করে যাবেন; বিনিময়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ উপহার পাবেন না।

Developed By The IT-Zone