ঢাকাবুধবার , ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় নিয়োগ পরীক্ষার বিভিন্ন পদে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০ ৯:৫২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সৈয়দ হাবিবুর রহমান ডিউক: শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন পদে নিয়োগ পরীক্ষার পূর্বেই অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। । গত কয়েক মাস আগে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায়  কম্পিউটার অপারেটর, অফিস সহকারী ও ড্রাইভার পদে একটি নিয়োগ প্রকাশিত হয়েছে, এই নিয়োগ পরীক্ষা আগামী  ২৮ তারিখে  অনুষ্ঠিত হবে, যেখানে পরীক্ষার পূর্বে গণহারে বিভিন্ন ইস্যু দেখিয়ে প্রায় অনেক প্রার্থীর আবেদন ফরম বাতিল করা হয়।

আবেদনের সাথে সবাই ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি দিয়েছেন, কিন্তু জন্ম নিবন্ধনের কপি কেন দেয়া হয়নাই এই ইস্যু দেখিয়ে অনেকের আবেদন বাতিল করে দেয়া হয়েছে।  শেখ জসিম উদ্দিন লেখেন, জন্ম সনদের বদলে এনআইডি দিলেও তার আবেদন ও বাতিল করা হয়।এ বিষয়ে ফেইসবুকে শেখ মো:  জামাল পোস্ট করেন, আমার জানা মতে সরকারি চাকুরিতে আবেদন করার সময় কোন প্রার্থী যদি ব্যাংক ড্রাপট বা ট্যাজারি চালান দিয়ে টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেয় তাহলে অন্তত ঐ প্রার্থী নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারে এক্ষেত্রে ঐ প্রার্থীর সব সনদের ফটোকপি দ্বারা ১ম কাজ শেষ হয়  তখন কোন মূল সনদ আছে কি না তা যাচাই করা হয় না। কিন্ত নতুন নিয়ম টা আমাদের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় দেখলাম।এছাড়াও শোনেছি অফিস সহকারী উস্তার মিয়া নিজের ভাইকে চাকুরী পাওয়ানোর জন্য তার ভাইকে যাতে করে পরীক্ষার কেন্দ্রে সহযোগিতা করতে পারে এমন কয়েকজন কে তার আশেপাশে সিট বসিয়ে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য তাদের আবেদন বাতিল করেনি।

আমি এই দেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে উপজেলা প্রশাসনের কাছে প্রশ্ন পরীক্ষার পূর্বে কেন তাদের আবেদন বাজেয়াপ্ত হবে?আমরা দেখেছি সরকারি যে কোন রিটেন পরীক্ষায় পাশ করলে তাকে সুযোগ দেওয়া হয় তার কাগজ পত্র ঠিক করার জন্য তাহলে কেন এই উপজেলায় এই বৈষম্য।

উপজেলা প্রশাসন কি সরকারি নীতি মেনে চলছে নাকি নিজের মত করে চলছে?

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সুমি আক্তারকে মুঠোফোনে জিজ্ঞােসা করলে তিনি বলেন,আমরা কারো আবেদন ফরম বাতিল করিনি, এ বিষয়ে প্রশ্ন করায় তিনি বিব্রত হয়ে  বলেন, আমাদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তীর শর্তমোতাবেক যারা আবেদন করেননি, তাদের আবেদনই বাতিল করা হয়েছে।  আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম  ফেইসবুকে এ বিষয়ে  পোস্টের ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না ।

 

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুল রশীদ তালুকদার ইকবালকে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 

Developed By The IT-Zone