ঢাকাসোমবার , ২৭ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শায়েস্তাগঞ্জে ৫শ হেক্টর জমির আউশ ধান তলিয়ে গেছে পানিতে

মুহিন শিপন
জুন ২৭, ২০২২ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বিরামহীন বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে শায়েস্তাগঞ্জের নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে ৫ শ হেক্টর জমির আউশধান পানিতে তলিয়ে গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার মররা, নিশাপট, কাজীরগাও, ঢাকিজাংগল, লাদিয়া, ফরিদপুর, বারলাড়িয়া, চন্ডিপুর, নোয়াগাও, পুরাসুন্দা, কেশবপুর, উলুহর, পুটিয়া, শৈলজুড়া, বাখরনগর গ্রামের নিম্নাঞ্চলের জনপদ পানিতে তলিয়ে গেছে।

কিছুদিন আগেই বোনা আউশ ধান তলিয়ে গেছে দুই তিন ফুট পানিতে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ বছর উপজেলায় আউশ ধানের আবাদ প্রায় ৭৫০ হেক্টর। এর মধ্যে ৪৮০ হেক্টর আউশ ধান নষ্ট হয়ে গেছে।

শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নে আউশ ধানের আবাদ ৩৫০ হেক্টরের মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে ২৭০ হেক্টর।
শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় আউশ ধানের আবাদ ৫০ হেক্টেরর মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে ৩০ হেক্টর।

নূরপুর ইউনিয়নে আউশ ধানের আবাদ ২০০ হেক্টরের মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে ১১০ হেক্টর।
ব্রাক্ষনডোরা ইউনিয়নে আউশ ধানের আবাদ ১৫০ হেক্টরের মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে ৭০ হেক্টর।

উপজেলার কাজীরগাও গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক মোঃ ইউসুফ মিয়া বলেন, আমার ৭২ শতক জায়গার আউশ ধান বানের পানিতে একেবারে তলিয়ে গেছে।

আমার মতো গ্রামের সবারই ধানের জমি পানির নিচে। আমরা এখন দিশেহারা। কৃষকদের বাচাতে সরকারের সহযোগীতা কামনা করেন তিনি।

উপজেলার বারলাড়িয়া গ্রামের কৃষক আবুল কালাম বলেন, উজানের ও বৃষ্টির পানিতে আমার ৫ বিঘা জমির ধান তলিয়ে গেছে।
আমি অনেক টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হলাম।

কেশবপুর গ্রামের কৃষক কদ্দুস মিয়া বলেন, ধারদেনা করে এক বিঘা জমিতে আউশ ধান লাগাইছিলাম।

কিন্তু সব নিয়া গেল পানি। কেমনে মানুষের পাওনা দাওনা দিমু আল্লাহ ই জানে।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার সুকান্ত ধর বলেন সম্প্রতি লাগানো আউশ ধানের ৬৫% পানিতে তলিয়ে গিয়ে নষ্ট হয়ে গেছে।

পানি নামলে হয়তো কিছুটা রিকভার হবে।আমাদের ক্ষতি অপূরনীয়।পরবর্তী আমন মৌসুমে যাতে কৃষকরা প্রয়োজনীয় কৃষি উপকরন পায় সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।

প্রয়োজনীয় প্রনোদনা ও পূনর্বাসনের জন্য আমরা মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করেছি। আমরা কৃষকদের পাশে সর্বদা আছি।

Developed By The IT-Zone