ঢাকাসোমবার , ২৫ জুলাই ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে সাগর দাশ নিহতের ঘটনায় দোকানদার রিপনের বিরুদ্ধে আদালতের হত্যা মামলার নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার
জুলাই ২৫, ২০২২ ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

লাখাই উপজেলার বুল্লা বাজারে সাগর দাস নামের এক দোকান কর্মচারীর নিহত হওয়ার ঘটনায় দোকান মালিক রিপন সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা রুজু করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

নিহত সাগর দাসের পরিবারের অভিযোগ বেতনের পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরে গত ১৮ জুলাই সাগর দাস কে হত্যা করেন পশ্চিম বুল্লা গ্রামের বাসিন্দা মৃত মদন মিয়ার পুত্র মোর্শেদ মান্নান রিপন, সিংহগ্রামের রুকু মিয়ার পুত্র ফরহাদ মিয়া, কামালপুর গ্রামের বাসিন্দা সাহাজুল মিয়ার পুত্র রবিন মিয়া সহ আরো কয়েকজন।

এছাড়া বুল্লা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আশিক রাজিব এবং সমিতির সেক্রেটারি মিলে হত্যা মামলার আসামী রিপনের সাথে আত্নীয়তার সুবাদে সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতকারী এসআইকে ভুল তথ্য প্রদান করেন বলে অভিযোগ করেন সাগর দাসের পিতা।

উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই এ ঘটনায় সাগর দাসের পিতা সেন্টু লাল দাস লাখাই থানায় মামলা দায়ের করলে সেটি আমলে নেয়নি পুলিশ। এ নিয়ে ২১ জুলাই লাখাইয়ে দোকান কর্মচারীর রহস্যজনক মৃত্যু; পরিবারের দাবি হত্যাকান্ড, থানায় লিখিত এজাহার নথিবদ্ধ করেনি পুলিশ্ শিরোনামে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সংবাদটি আদালতের নজরে এলে সংবাদটিকে গুরুত্ব দিয়ে ২৪ জুলাই নিহতের পিতা সেন্টু দাশের আদালতে লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযোগটিকে এফআইআর গন্য করে আদেশ প্রাপ্তির ৩ দিনের মধ্যে মামলা রুজু করার জন্য লাখাই থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ দেন আদালত। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসাইন এর আমলি আদালত ৭ এই আদেশ দেন।

এ ব্যাপারে লাখাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইদুল ইসলাম জানান, আমি এখন পর্যন্ত আদালত কর্তৃক মামলা রেকর্ডের নির্দেশনা পাই নি। পেলে মামলা রেকর্ড করা হবে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, লাখাই উপজেলার স্বজনগ্রামের বাসিন্দা সেন্টু লাল দাসের ছেলে সাগর দাস ( ২০) দীর্ঘদিন যাবত বুল্লা বাজারের প্রিয়া সাউন্ড সিস্টেম নামের দোকানে কাজ করতেন। গত এক, দেড় বছরের বেতনের পাওনা টাকার হিসাব নিকাশের জন্য দোকান মালিক মোর্শেদ মান্নান রিপন, ফরহাদ মিয়া, রবিন মিয়া ও ৪/৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তির সাথে সাগর দাস হিসাব করতে বসেন।

এ সময় সাগর দাসকে পাওনা টাকা কম দিয়ে গালিগালাজ করে বিদায় করে দেওয়ার চেষ্টা করেন দোকান মালিক। সাগর দাস এর প্রতিবাদ করায় গত ১৮ জুলাই উল্লেখিত ব্যক্তিগণ ও অজ্ঞাতনামা আরো ৪/৫ জন ব্যক্তি মিলিত হয়ে ধারালো ও ভোতা অস্ত্র দিয়ে তার ডান হাতের বগলতলায় রক্তাক্ত গভীর জখম, বাম হাতের কনুইয়ে কাটা জখম, পিঠের উপরে ডান ও বাম পাশে ছিলা জখম করেন।

এ সময় প্রচুর রক্ত ক্ষরণে তার মৃত্যু হয়। ঘটনার পরপরই উল্লেখিত ব্যক্তিরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ী তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার হাসপাতালে আসার আগেই মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।

সেন্টু লাল দাস এজাহারে উল্লেখ করেন প্রধান আসামীর আত্নীয় হিসবে সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতকারী এসআইকে ভুল তথ্য প্রদান করেন বুল্লা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আশিক রাজিব। একই অভিযোগ উঠেছে সমিতির সাধারন সম্পাদকের বিরুদ্ধেও।

Developed By The IT-Zone