ঢাকাশনিবার , ১৩ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লাখাইয়ে গ্রাম হবে শহর প্রকল্প’র অসমাপ্ত ড্রেন নির্মাণ কাজ ফের শুরু

আতাউর রহমান ইমরান
আগস্ট ১৩, ২০২২ ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের দীর্ঘ এক বছর পর লাখাই উপজেলার বুল্লা বাজারের গোপাটে গ্রাম হবে শহর প্রকল্পের আওতায় নির্মিত একটি অসমাপ্ত ড্রেন নির্মাণ কাজ পুনরায় শুরু হয়েছে। এরই সাথে তেঘরিয়া ও ভাকিারায় একই প্রকল্পের ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ২৬ জুলাই ‘লাখাইয়ে কাজ অসমাপ্ত রেখেই গ্রাম হবে শহর প্রকল্প’র ১০ লক্ষ টাকা উত্তোলনের অভিযোগ’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদের প্রেক্ষিতে বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহল তৎপর হলেও এ প্রকল্পের ফান্ড সংকটের কারণে এতদিন অসমাপ্ত কাজটি সমাপ্ত করা যায়নি।

তবে সংশ্লিষ্ট সংবাদ কর্মীদের সজাগ সৃষ্টির প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ ফান্ড প্রাপ্তি সাপেক্ষে মূল ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান পুনরায় কাজটি শুরু করেছেন বলে জানা যায়।

জানা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের অধীনে গ্রাম হবে শহর প্রকল্পের আওতায় লাখাই উপজেলার তেঘরিয়ায় ২৭৫ মিটার দৈর্ঘের ১ টি পাঁকা ড্রেইন, ভাদিকারায় ৪৯৫ মিটার দৈর্ঘ্যের ২ টি পাকা ড্রেইন ও বুল্লা বাজারের গোপাটে ২৭৫ মিটার দৈর্ঘ্যের একটি আরসিসি পাকা ড্রেইন নির্মাণের জন্য ১ কোটি ২৮ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।

সোহাগ এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ঠিকাদারি সংস্থা নির্মাণ কাজ করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। কিন্তু ঠিকাদারি কাজে জড়িত বলে পরিচিত উপজেলার মুড়িয়াউক গ্রামের বাসিন্দা বশির আহমেদ নামে এক ব্যক্তি সাব ঠিকাদার হিসেবে কাজ করার জন্য ওই কাজটি করার দায়িত্ব ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির নিকট হতে নিয়ে আসেন।

প্রায় এক বছর আগে বুল্লা বাজারের গোপাটে আরসিসি পাঁকা ড্রেনটির কাজ আরম্ভ করলেও এক পর্যায়ে নির্মাণ কাজ অসমাপ্ত রেখেই কাজটি স্থগিত করে রেখে দেন ঠিকাদার বশির।

কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা যায় এ ড্রেন নির্মাণ বাবদ প্রাপ্য বিল এর একাংশ ইতিমধ্যেই তিনি উত্তোলন করে নিয়েছেন। তেঘরিয়া ও ভাদিকারা গ্রামে নির্মিতব্য তিনটি পাকা ড্রেন নির্মাণ কাজ ও তিনি শুরু করেননি একই অজুহাতে।

লাখাই উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের সার্ভেয়ার দুলাল আহমেদ এর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ প্রকল্পের পূর্ণাঙ্গ ফান্ড বরাদ্দ পাওয়ায় মূল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তেঘরিয়া, ভাদিকারা ও বুল্লা বাজারে কাজ সমাপ্ত করছে।

Developed By The IT-Zone