ঢাকাবুধবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগকে গুরুত্ব দিতে হবে : ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯ ৮:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি :    মুক্তিযুদ্ধ বাঙালি জাতির জাতীয় জীবনে এক অনবদ্য অধ্যায়, আর মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত স্বাধীনতা আর লাল সবুজের পতাকার সম্মান অক্ষন্ন রাখতে আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগকে গুরুত্ব দিতে হবে। তাঁদের আত্মত্যাগকে স্মরনীয় করতে হলে তাঁদের চেতনার সোনার বাংলা গড়তে হবে। বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুর ২ ঘটিকায় নবীগঞ্জ আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নবীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন “কুটিশ্বর দাশ স্মৃতি সাহিত্য পরিষদ” কর্তৃক নবীগঞ্জ উপজেলার সকল জীবত মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগীতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম উপরোক্ত কথাগুলি বলেন।

সংগঠনের সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব রত্নদীপ দাস রাজুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুকান্ত দাশের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ উপজেলায় সদ্য যোগদানকৃত নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পাল, ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম, জাতিসংঘের সাব-কমিটির সদস্য মিয়া জুয়েল, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নূর উদ্দিন আহমেদ (বীর প্রতীক), সাবেক ডেপুটি কমান্ডার এডঃ দ্বীপেশ চন্দ্র দাশ, ইউ/পি আওয়ামীলীগ সভাপতি বজলুল রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিক আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আনিস মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা গজেন্দ্র দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জালাল উদ্দিন সিদ্দীকী, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী লাল মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিবারন দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা অবনী মোহন দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরু মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা গঙ্গেশ বিজয় দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইরেশ দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদিক মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা অনুকুল মহালদার, প্রধান শিক্ষক আলী আমজদ মিয়া, প্রধান শিক্ষক রুবলে মিয়া, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড নেতা রুপায়ন দাশ, যুবলীগ নেতা বিশ্বজিত দাশ নারায়ন, সংগঠনের সহ-সভাপতি প্রভাশ চন্দ্র দাশ টিটু, সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর পাল প্রমুখ।

 

সভার শুরুতেই ৩০ লক্ষ শহীদ ও মুক্তযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন কারনে মৃত্যু বরণকারী সকল মুক্তিযোদ্ধার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় ১ মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়। এবং অনুষ্ঠান শেষে উপজেলার সকল জীবিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ক্রেস্ট এবং সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগীতা বিজয়ী ২৫ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

Developed By The IT-Zone