ঢাকাবুধবার , ৩১ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় শহীদ পরিবারের সদস্যদের জন্য মুজিব বৃত্তি

বিশেষ প্রতিনিধি
আগস্ট ৩১, ২০২২ ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা ও দিল্লি রক্তের বন্ধনে আবদ্ধ। কারণ, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রাণ দিয়েছেন ভারতের সৈনিকেরাও। ভারতীয় শহীদ সৈনিকদের ইতোমধ্যে সম্মাননা দিয়েছে বাংলাদেশ। এবার শহীদ পরিবারের বংশধরদের ‘মুজিব বৃত্তি’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

আশা করা হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় শহীদ পরিবারের বংশধরদের হাতে দুই প্রধানমন্ত্রী বৃত্তির সনদ তুলে দেবেন।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব মাশফি বিনতে সামস বলেন, ‘স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের এক হাজার ৬০২ জন সৈনিক শহীদ হয়েছেন।

তাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে তাদের বংশ ধরদের পড়াশোনার জন্য বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মুজিব বৃত্তি দেওয়া হবে।’

সবকিছু ঠিক থাকলে শেখ হাসিনার আসন্ন দিল্লি সফরের সময়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে যৌথভাবে প্রথম দফার ‘যুদ্ধে শহীদ পরিবারের জন্য মুজিব বৃত্তি’র সার্টিফিকেট তুলে দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

মাশফি বিনতে সামস আরও বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ভারতের সঙ্গে এ বিষয়ে একটি সফল অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আলোচনা করছি, যেখানে শহীদ পরিবারের সদস্যদের আমন্ত্রণ জানানো হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘মোট ২০০ জন শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়া হবে এবং প্রথম দফায় সাত থেকে ১০ জনকে দেওয়া হবে।সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট এবং হায়ার সেকেন্ডারি সার্টিফিকেট শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার খরচ হিসেবে এই বৃত্তি দেওয়া হবে।’

কারা এই বৃত্তি পাবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শহীদদের বংশধর, অর্থাৎ সন্তানের সন্তানরা এই সুবিধা পাবে। বৃত্তি কারা পাবে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সেটি আমাদের জানাবে এবং সেটির ওপর ভিত্তি করে আমরা তাদের নির্ধারিত অর্থ প্রদান করবো।’

তিনি বলেন, ‘এর আগে দিল্লিতে এবং কলকাতায় দুই দফায় আমরা শহীদদের সম্মাননা দিয়েছি। যারা বাকি আছে সবাইকে সম্মাননা দেওয়া হবে’। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের ভারত বিভিন্ন বৃত্তি দিয়ে থাকে এবং এরমধ্যে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের পরিবারের সদস্যরাও রয়েছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ৪ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি যাবেন। এর আগে গত বছর ভারতের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ঢাকা সফর করেছেন।

Developed By The IT-Zone