ঢাকারবিবার , ২৬ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচঙ্গে বন্যায় গো-খাদ্য সংকট ঘটছে কোরবানির পশুর স্বাস্থ্যহানি

ইমদাদুল হোসেন খান
জুন ২৬, ২০২২ ১:৩৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কিছুদিন পরেই মুসলমানদের বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা। যা কোরবানির ঈদ হিসেবে পরিচিত। এ সময় কোরবানির পশুর জন্য অতিরিক্ত খাবার প্রয়োজন।

তবে অতিরিক্ত খাবার তো দূরের কথা ন্যূনতম খাবারও পাচ্ছে না কোরবানির পশু। বন্যায় খড়ের গাদা পানিতে ডুবে নষ্ট হচ্ছে, হাওরের প্রাকৃতিক ঘাস ডুবে গেছে; উঁচু স্থানে খামারীদের আবাদকৃত ঘাসও ডুবে পঁচে গেছে।

ফলে গো-খাদ্যের তীব্র সংকটে কোরবানির পশুর স্বাস্থ্যহানি ঘটছে। ঠিকমতো খাবার দিতে না পেরে লাখ টাকার গরুর দাম এখন ৭০ হাজারে নেমেছে।

এমনসব তথ্য জানিয়েছেন বানিয়াচং উপজেলার গরুর খামারীরা। গবাদিপশুর খাদ্য সংকট দেখা দেয়ায় খড়সহ বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির সম্পূরক খাদ্যের দামও আকাশচুম্বী হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন তারা।

তাছাড়া বন্যার কারণে অনেকের গরুর খামার ডুবে যাওয়ায় অন্যত্র গরু সরিয়ে নিয়ে চোরের ভয়ে রাত জেগে পাহারা দিতেও হচ্ছে বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

সম্প্রতি বন্যার মধ্যেও দিনেদুপুরে বানিয়াচং উপজেলা সদরের ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়নের আনজইন এলাকা থেকে গরু চুরি করে নিয়ে যাবার প্রাক্ষালে ১নং উত্তর-পূর্ব ইউনিয়নের বাদাউরি গ্রামের ৪ চোর হাতেনাতে ধরা পড়ার ঘটনায় খামারীদের মধ্যে চোর আতংক আরও বেড়ে গেছে বলে জানা গেছে।

বানিয়াচং সদরের ২নং উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়নের শরীফখানী গ্রামের গরুর খামারী ও বানিয়াচং প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোশাররফ হোসাইন জানান, গরুর খাদ্য হিসেবে মজুদকৃত খড়ের গাদায় বন্যার পানি উঠায় সেগুলো পঁচে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে।

এগুলো গরু খেতে চায়না, আর খাওয়ানোর চেষ্টা করাও ঠিক নয়; এসব পঁচা খড় জোর করে খাওয়ালে গরুর পেটের অসুখে আক্রান্ত হবে। তিনি আরও জানান, তিনিসহ অনেক খামারী উঁচু জায়গায় বিদেশী ঘাস রোপন করে বড় করেছিলেন।

এগুলোও পানিতে ডুবে পঁচে গেছে।
১নং বানিয়াচং উত্তর-পূর্ব ইউনিয়নের মীর মহল্লা (মাতাপুর) গ্রামের গরুর খামারী কবি সৈয়দ মিজান উদ্দিন পলাশ জানান, খামারে বন্যার পানি উঠায় অনেক কষ্টে গরুগুলোকে বড় নৌকা ভাড়া করে বাড়ীতে নিয়ে এসেছি।

কিন্তু ঠিকমতো খাবার দিতে না পারায় গরুর স্বাস্থ্যহানি ঘটছে। অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে এক জায়গায় কিছু শুকনো খড় পেয়ে চড়াদামে কিনতে হয়েছে।

বাজারে যেসব কোম্পানির সম্পূরক খাদ্য রয়েছে সেগুলোর দামও অনেক বেড়ে গেছে। খাবারের অভাবে স্বাস্থ্যহানির ফলে ঠিকমতো গরুর দাম উঠছেনা।

চোরের ভয়ে রাত জেগে গরু পাহারা দেয়ার কথাও এমবিএ পাশ করা এই উচ্চ শিক্ষিত খামারী জানান।

উল্লেখ্য, বানিয়াচংয়ে কোরবানির গরুর হাট বসানোর মাইকিং করা হয়েছিল। কিন্তু এরই মধ্যে বন্যার পানিতে হাট তলিয়ে যাওয়ায় আর হাট বসেনি। হাট না বসলেও শুরু হয়ে গেছে অনলাইনে দরাদরি।

Developed By The IT-Zone