ঢাকারবিবার , ২৮ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচংয়ে প্রবাসীর বাড়িতে দুর্বৃত্তদের হামলা-ভাঙচুর : থানায় অভিযোগ দায়ের

স্টাফ রিপোর্টার
আগস্ট ২৮, ২০২২ ১০:১২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বানিয়াচং ৩নং দক্ষিণ-পূর্ব ইউনিয়নের অন্তর্গত সাগরদিঘীর পূর্ব পাড়ের কুয়েত প্রবাসী মিজানুর রহমান চৌধুরী রুমনের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর চালিয়েছে একই এলাকায় কাওসার চৌধুরী ও সুজাত চৌধুরীর নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন দুর্বৃত্ত।

শনিবার (২৭আগস্ট) ভোর সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্রবাসী মিজানুর রহমান রুমনের মা মোছা: হামিদা বেগম বাদি হয়ে শনিবার সাগর দিঘীর পূর্বপাড়ের মৃত ইদ্রিছ আহম্মদ চৌধুরীর পুত্র সুজাত মিয়া,কাওছার আহম্মদ,সাফিক মিয়ার স্ত্রী ফারজানা চৌধুরী,সুজাত মিয়ার কন্যা লিমা চৌধুরী,সুজাত মিয়ার পুত্র জিসু চৌধুরী ও সুজাত মিয়ার স্ত্রী হামিদা চৌধুরী কে অভিযুক্ত করে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,বানিয়াচং উপজেলার দেশমুখ্যপাড়া মৌজার জে এল নং-এস এ ৯৯,আর এস নং-১০৫,এস এ খতিয়ান নং-২৮,আর এস খতিয়ান নং-২৫০,এস এ দাগ নং-১৪৯,১৫০,১৫১,আর এস দাগ নং-৬৩/৬৫/৬৬,পরিমান ৩৩ শতক এর মধ্যে ১৪.২০ শতক বাড়ি রকম ভুমি। উপরোল্লিখিত তফসিল বর্ণিত ভূমির বিষয়ে স্থানীয়ভাবে আপোষ-নিষ্পত্তি হলে এলাকার মুরুব্বিগণ কাগজপত্র পর্যালোচনা করে যার যার হিস্যা অনুযায়াী জায়গা পরিমাপ করে সীমানা নির্ধারণ করে দিলে বাদিসহ বিবাদীগণ নিজনিজ জায়গা ভোগ করে আসছেন।

একপর্যায়ে বাদি হামিদা বেগম তার জায়গাতে পাকা ঘর নির্মাণ শুরু করলে বিবাদী সুজাত মিয়া বাদি হয়ে বিজ্ঞ আদালতে হামিদা বেগম গংদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারায় মোকাদ্দমা দায়ের করেন।

এই মামলা চলমান অবস্থায় শনিবার ভোরে উপরের উল্লেখিত বিবাদীগণসহ অজ্ঞাত ২৫/৩০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা সিএনজি যোগে এসে বেআইনিভাবে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রসহ সন্ত্রাসী কায়দায় বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে হামিদা বেগমের নির্মাণাধীণ পাকা ঘর,পাকা বাউন্ডারি ভেঙ্গে চুরমার করে দেয়। যার আনুমানিক ৩ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগে বলা হয়।

হামিদা বেগমের ছেলেরা বর্তমানে প্রবাসে থাকায় ছেলে বৌদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় এই বাড়িতে বসবাস করছেন। সরেজমিনে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়,প্রবাসী রুমনের জায়গায় নির্মিত গাইডওয়ালসহ ১০টি পিলার ভেঙে দেয়া হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এসআই খালেক এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল। ঘটনার বিষয়ে জানতে এসআই খালেকের সাথে কথা হলে তিনি জানান,মুলত রাস্তা নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে এই সমস্যাটা। সুজাতের লোকেরা প্রবাসী রুমনের গাইডওয়াল ও পিলার ভেঙেছে সেটা সত্য।

ভোর বেলায় নাকি কয়েকটি সিএনজি দিয়ে লোকেরা এসে এগুলো ভাঙচুর করেছে। আমরা এই ভাঙচুরের ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ করে পরবর্তীতে আদালত প্রসিকিউশন পাঠাবো। সেখান থেকে যে নির্দেশনা আসা পরবর্তীতে সেই মোতাবেক কাজ করা হবে। তবে উভয়পক্ষকেই শান্ত থাকবে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য,অভিযুক্ত ২নং আসামী কাওসার চৌধুরী ইংল্যান্ডের ওয়েস্ট নিউক্যাসেল এলাকার তালিকাভুক্ত ড্রাগ ডিলার এবং সাজাপ্রাপ্ত আসামীর তালিকায় তার নাম রয়েছে। বিগত ৩ বছর পূর্বে ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফিরে আসেন। মূলত এই হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাট তার নেতেৃত্বেই হয়েছে।

Developed By The IT-Zone