ঢাকামঙ্গলবার , ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচংয়ে জেএসসিতে পাশের হার ৯১% : এ প্লাস পেয়েছে ৮১ জন পরীক্ষার্থী

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯ ৮:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রায়হান উদ্দিন সুমন :  বানিয়াচং উপজেলায় ২০১৯ সালের জেএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৯১% আর এ প্লাস এসেছে ৮১টি। মঙ্গলবার সারা দেশে একযোগে জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বানিয়াচংয়েও নিজনিজ প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এবারের জেএসসি পরীক্ষায় বানিয়াচং উপজেলার ৩২টি বিদ্যালয় থেকে মোট ৫ হাজার ৫৬জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এদের মধ্যে পাশ করেছে ৪ হাজার ৬শ ৬ জন পরীক্ষার্থী। আর এ প্লাস তথা জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮১জন পরীক্ষার্থী। পাশের হার ৯১%। যা বোর্ডে পাশের হার ৮২.৭৯%।

 

জানা যায়,বানিয়াচং উপজেলার বানিয়াচং সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের জেএসসি পরীক্ষায় মোট ১১২জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ১১২ জন। পাশের হার ১০০%। এ প্লাস পেয়েছে ২০জন পরীক্ষার্থী। এল আর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১০২ জন। পাশ করেছে ১০১ জন। পাশের হার ৯৯.০২%। এ প্লাস পেয়েছে ৭জন পরীক্ষার্থী। বানিয়াচং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৫২২ জন। পাশ করেছে ৫০৮ জন। পাশের হার ৯৭.৩২%। এ প্লাস পেয়েছে ২৮জন পরীক্ষার্থী। ডা:ইলিয়াছ একডেমি থেকে মোট ৩০৮জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ৩০৫জন পরীক্ষার্থী। পাশের হার ৯৯.০২%। এ প্লাস পেয়েছে ৮জন। মেধাবিকাশ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের জেএসসি পরীক্ষায় মোট ২৭৬জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। তন্মধ্যে পাশ করেছে ২৬৬ জন। পাশের হার ৯৬.৩৮%। এ প্লাস পেয়েছে ৫জন পরীক্ষার্থী।

কাদিরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট ১৮০জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ১৪৭জন। পাশের হার ৮১.৬৬%। এ প্লাস পেয়েছে ৩জন পরীক্ষার্থী। দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার মোট ১৩৮জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ১১৯জন । পাশের হার ৮৬.২৩%। এ প্লাস নাই। আড়িয়ামুগুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট ১৫৬জন পরীক্ষার্থী এবারের জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। পাশ করেছে ১৪০জন। পাশের হার ৮৯.৭৪%। এ প্লাস পেয়েছে ১ জন। একতা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট ১১৭জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ১১৩ জন। পাশের হার ৯৬.৫৮%। এ প্লাস নাই। সন্দলপুর বিসি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট ২২৪জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ২০৬জন। পাশের হার ৯১.৯৬%। এ প্লাস পেয়েছে ১জন। নাগুরা ফার্ম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার মোট ২৪৯জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। পাশ করেছে ২২৭জন । পাশের হার ৯১.১৬%। এ প্লাস পেয়েছে ২জন। জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ২১৪জন। পাশ করেছে ১৯৭জন। পাশের হার ৯২.০৫%। এ প্লাস পেয়েছে ১জন। বানিয়াচং জেডিএম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৯৯ জন। পাশ করেছে ১৭৯জন। পাশের হার ৮৯.৯৪%। এ প্লাস নাই। হানিফ খান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট পরীক্ষাথী ছিল ১৯৫জন। পাশ করেছে ১৭৩জন। পাশের হার ৮৮.৭২%। এ প্লাস নাই। রতœা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১২৪জন। পাশ করেছে ৯১জন। পাশের হার ৭৩.৩৯%। এ প্লাস নাই।

সাতগ্রাম একতা উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১০২জন । পাশ করেছে ৬১জন। পাশের হার ৫৯.৮০%। এ প্লাস নাই। হিয়ালা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২৬৭জন। পাশ করেছে ২২০জন। পাশের হার ৮২.৩৯%। এ প্লাস নাই। ইকরাম নন্দপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৮০জন। পাশ করেছে ১৬১জন। পাশের হার ৮৯.৪৪%। এ প্লাস নাই। হযরত শাহজালাল (র:) উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৬৪জন। পাশ করেছে ৬৩জন। পাশের হার ৯৮.৪৪%। এ প্লাস নাই। উত্তর সাঙ্গর উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৩৩জন । পাশ করেছে ১২৫জন। পাশের হার ৯৩.৯৮%। এ প্লাস নাই। বানিয়াচং আমবাগান উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৭৩জন। পাশ করেছে ১৪৪জন। পাশের হার ৮৩.২৩%। এ প্লাস নাই। বিজিএম উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৩১জন। পাশ করেছে ১২৫জন। পাশের হার ৯৫.৯১%। এ প্লাস নাই।

 

মুরাদপুর এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৯৪জন। পাশ করেছে ৯৪জন। পাশের হার ১০০%। এ প্লাস নাই। মন্দরী এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৪৯জন। পাশ করেছে ৩৮জন। পাশের হার ৭৭.৭৫%। এ প্লাস নাই। মহারতœপাড়া এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৬৫জন। পাশ করেছে ১৬১জন। পাশের হার ৯৭.৫৭%। এ প্লাস নাই। বুল্লা গোড়াখালি এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৫১জন। পাশ করেছে ৪৯জন। পাশের হার ৯৬.০৭%। এ প্লাস ১জন। কুরশা খাগাউড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৫০জন। পাশ করেছে ৪৮জন। পাশের হার ৯৬। এ প্লাস নাই। সিকন্দরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৬২জন। পাশ করেছে ৬০জন। পাশের হার ৯৬.৭৭%। এ প্লাস পেয়েছে ৩জন।

 

বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২৮৫জন। পাশ করেছে ২৫৪জন। পাশের হার ৮৯.১২%। এ প্লাস নাই। খান বাহাদুর এহিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৫১জন। পাশ করেছে ৩৮জন। পাশের হার ৭৪.৫১%। এ প্লাস পেয়েছে ১জন। হলদারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২৯জন। পাশ করেছে ২৯জন। পাশের হার ১০০%। এ প্লাস নাই।

 

অন্যদিকে বানিয়াচং উপজেলার ১০টি মাদ্রাসা থেকে মোট ৪৯৮জন পরীক্ষার্থী এবারের জেডিসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে। পাশ করেছে ৪৭৮জন। পাশের হার ৯৫.৯৮%। এদের মধ্যে কেউ ই এ প্লাস পায়নি।

Developed By The IT-Zone