ঢাকামঙ্গলবার , ৭ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বানিয়াচংয়ে একে একে লকডাউন হচ্ছে বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
এপ্রিল ৭, ২০২০ ৪:০৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জসিম উদ্দিন, বানিয়াচংঃ হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড তৈরী করে নিজ নিজ এলাকা লকডাউন করে দিচ্ছেন স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) বানিয়াচং উপজেলা সদরের কয়েকটি ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায় বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার প্রবেশ পথে বাঁশ বেধে লকডাউন করে দিয়েছে এলাকার জনসাধারণ ও গ্রামের যুবকরা।

নিজেদের এলাকা লকডাউন করে এলাকার বাসিন্দারা স্বেচ্ছায় অবরুদ্ধ জীবনযাপন করছে। উপজেলার ১ নং ইউনিয়নের মজলিশ মহল্লায় গিয়ে দেখা যায়, মহল্লার প্রতিটি প্রবেশ মুখে বাঁশ বেঁধে ব্যারিকেড দিয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে গ্রামবাসী। সেখানে দাঁড়িয়ে আছেন কতিপয় যুবক।

ছবি : বানিয়াচংয়ের একটি মহল্রার প্রবেশমুখ লকডাউন করে দিয়েছে এলাকাবাসী

ওই এলাকার বাসিন্দা শফিউল আলম শাহিন জানান, ‘করোনা ঠেকাতে সড়ক দিয়ে সবধরনের যান চলাচল বন্ধ করতে এবং গ্রামকে সুরক্ষিত রাখতে বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গ্রামে বাইরের কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না এবং গ্রামবাসী জরুরি প্রয়োজন ছাড়া গ্রামের বাইরে বের হচ্ছেন না।’

 

একই ইউনিয়নের দাশপাড়া মহল্লায় গিয়ে দেখা যায়, এলাকার প্রবেশ মুখ বাঁশের বেড়া দিয়ে আটকে দিয়েছেন গ্রামের যুবকরা।  ওই মহল্লার বাসিন্দা শিক্ষক এইচ এম খায়রুজ্জামান রাজীব জানান, করোনা ঠেকাতে যানবাহন চলাচল ও গ্রামের মানুষের চলাচল সীমিত করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন এলাকাবাসী। তবে প্রশাসনের সকল যানবাহন ও ত্রানসামগ্রী বিতরণের জন্য চলাচলকারী যানবাহন লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে বলে জানান তিনি।

 

এদিকে উপজেলা সদরের পুরান তোপখানা মহল্লা করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে স্বেচ্ছায় লকডাউন করে দিয়েছে সেখানকার বাসিন্দারা।

এখানে কারও শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা যায়নি। তবুও আগাম সতর্কতা হিসেবে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

তারা জানান, বর্তমানে দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। তাই নিজেদের রক্ষার স্বার্থে আমরা আমাদের মহল্লা লকডাউন করে দিয়েছি।

ফলে এই মহল্লায় বাইরে থেকে কেউ প্রবেশ করতে পারছে না। আর এখানকার বাসিন্দারাও একান্ত প্রয়োজন ছাড়া মহল্লার বাইরে যাচ্ছেন না।

আজ বিকালে ওই মহল্লার সচেতন যুবকরা এলাকার মুরুব্বীদের সাথে পরামর্শ করে মহল্লার তিনটি প্রবেশপথে বাঁশের প্রতিবন্ধকতা ও নোটিস টাঙিয়ে দিয়েছেন। তাতে লেখা আছে ‘করোনা ভাইরাসের সচেতনতা বাড়াতে আজ থেকে পুরান তোপখানা মহল্লা লকডাউন।’

পুরান তোপখানা মহল্লার বাসিন্দা ও বড়বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম সাইফুল ইসলাম সেলিম জানান, ‘পুরান তোপখানা মহল্লাটির অবস্থান স্থানীয় বড়বাজার সংলগ্ন। তাই যৌথ বাহিনীর অভিযানের সময় অনেক মানুষ নিজেদের আড়াল করতে দৌড়ে খুব সহজে ওই মহল্লায় ঢুকে যায়। তাছাড়া মহল্লায় আড্ডা দেয়ার জন্য প্রতিদিন অনেক বহিরাগত যুবক এখানে আসে। তাদের এ বেপরোয়া চলাফেরায় মহল্লায় করোনা ঝুঁকি এড়াতেই সচেতন মহল্লাবাসী এ উদ্যোগ নিয়েছেন।’

ওই মহল্লার বাসিন্দা এবং বানিয়াচং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ রিপন খান জানান, ‘করোনা সতর্কতায়  পুরান তোপখানা মহল্লায় বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে মহল্লাবাসী যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা নিঃসন্দেহে অনেক ভালো। আর এটি দেখে অন্যরাও অনেক সচেতন ও উদ্বুদ্ধ হবেন।’

 

এছাড়াও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে উপজেলা সদরের আরও অসংখ্য পাড়া-মহল্লা স্থানীয়রা এভাবে লকডাউন করে দিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

 

তবে এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুন খন্দকারের সাথে কথা হলে তিনি দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে জানান,বিভিন্ন পাড়া মহল্লার লকডাউন করার কথা শুনেছি। তবে এটা তারা নিরাপত্তার স্বার্থে করেছেন। সরকারি কোনো নির্দেশনা নেই । আর এখনো পুরো বানিয়াচংকে লকডাউনের আওতায় আনতে হবে এমন কোন ঘোষণা আসেনি।

Developed By The IT-Zone