ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২৬ মার্চ ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নবীগঞ্জে বিয়ের আয়োজন ভেঙে দিল প্রশাসন

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
মার্চ ২৬, ২০২০ ১:৩৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মোঃ তাজুল ইসলাম, নবীীগঞ্জ থেকে :  করোনা ভাইরাসের আতষ্কে যখন গোটা বিশ্ব স্তব্ধ তখন হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের এনাতাবাদ গ্রামে চলছিল বিয়ের রমরমা আয়োজন। বিয়ে বাড়িতে উৎসবের অংশ হিসেবে পুরোধমে চলছিল গান-বাজনা । আর ঠিক সেই মুহুর্তে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জন সচেতনতার অংশ হিসেবে প্রশাসনের হানায় ভণ্ডুল হয়ে গেছে বিয়ের আয়োজন। সেই সাথে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বিয়ের কোনো ধরণের আয়োজন না করা শর্তে মুচলেকা দিয়ে তবেই রক্ষা পায় কনে পক্ষ।

বুধবার (২৫) রাত ১১টার দিকে উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের এনাতাবাদ গ্রামে নেকরাজ মিয়ার বাড়িয়ে গিয়ে বিয়ের আয়োজন ভেঙে দেয়-পুলিশ।

জানা যায়, উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের এনাতাবাদ গ্রামের নেকরাজ মিয়ার মেয়ের সাথে একই উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের রোকনপুর গ্রামের বাদশা মিয়ার পুত্রের বিয়ে ৩০ মার্চ সোমবার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। বিয়ের আয়োজন হিসেবে কনের বাড়ি কুর্শি ইউনিয়নের এনাতাবাদ গ্রামে চলছিল বিয়ের রমরমা আমেজ-উৎসব। বিয়ের আয়োজন হিসেবে মাইক-স্পীকার দিয়ে উচ্চ সাউন্ডে গান-বাজনা চলছিল পুরোধমে। করোনা ভাইরাসে সরকারি বিধি নিষেধ অমান্য করে মধ্যে এমন গণসমাবেশ আয়োজনের খবর পায় প্রশাসন। বুধবার (২৫মার্চ) রাত ১১টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পাল ও নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমানের নির্দেশে এসআই সমীরণ চন্দ্র দাশের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বিয়ে বাড়িতে পৌঁছে মাইক-স্পীকারের গান-বাজনা বন্ধ করেন। এবং করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া এবং পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বিয়ের গায়ে-হলুদ কিংবা কোনো আয়োজন না করা স্বর্থে মুচলেকা দেন কনের বাবা নেকরাজ মিয়া। অতঃপর রক্ষা পায় কনে পক্ষ।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার এসআই সমীরণ চন্দ্র দাশ বলেন, করোনা ভাইরাসের করণে সব ধরণের সভা-সমাবেশ,গণ জমায়েত ও গণ সমাবেশ করতে নিষেধ করা হলেও এনাতাবাদ গ্রামে বিয়ের উৎসবের অংশ হিসেবে উচ্চ সাউন্ডে গান-বাজনা চলছিল। খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়ে গান-বাজনা বন্ধ করি।এ বিষয়ে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পাল বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এতো মাইকিং এতো সচেতনতা মূলক প্রচার প্রচারণা এবং নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও এনাতাবাদ গ্রামে বিয়ের আয়োজনের অংশ হিসেবে মাইক-স্পীকার দিয়ে উচ্চ সাউন্ডে গান-বাজনার আয়োজন করা হয়। পরে আমরা খবর পেয়ে সেখানে একদল পুলিশ পাঠাই। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গান-বাজনা বন্ধ করে দেয়। এবং পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কোনো ধরণের অনুষ্ঠান আয়োজন করবেনা স্বর্থে কনের পিতা মুচলেকা দিয়েছেন। সকলের সচেতনতার মাধ্যমে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করা সম্ভব তাই আসুন সকলে সচেতন হই। এবং নিজগৃহে অবস্থান করি।

Developed By The IT-Zone